kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২০ জুন ২০১৯। ৬ আষাঢ় ১৪২৬। ১৬ শাওয়াল ১৪৪০

টুইট করে পস্তালেন মার্কিন লেখিকা নাতাশা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ জুন, ২০১৯ ১৯:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টুইট করে পস্তালেন মার্কিন লেখিকা নাতাশা

একটি টুইটের জের ধরে পরবর্তী বইয়ের চুক্তি হারাতে বসেছেন পুরস্কার জয়ী জর্ডানিয়ান-মার্কিন লেখিকা নাতাশা তিনেস। এ ঘটনায় প্রকাশনা সংস্থাটির  বিরুদ্ধে ১৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ক্ষতিপূরণ মামলা করেছেন এই লেখিকা।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে, গত ১০ মে সকালে একটি ছবিসহ টুইট করেন নাতাশা। সেখানে ওয়াশিংটন ডিসি মেট্রোর ভেতর এর কৃষ্ণাঙ্গ নারী অপারেটরের খাবার খাওয়ার ছবি পোস্ট করেন। কর্মস্থলে যাওয়ার সময় খাবার গ্রহণের কারণে আপত্তি জানান নাতাশা। তিনি তাঁর  পোস্টে লেখেন, 'আপনি যখন সকালে মেট্রোর ভেতর আছেন, এবং দেখেন ওয়াশিংটন মেট্রোপলিটন এরিয়া ট্রানজিট অথরিটি (ডাব্লিউএমএটিএ)-এর ইউনিফর্ম পরা অপারেটর সকালের নাস্তা করছেন, আমার মনে হয় এটি ঠিক নয়। এটা মেনে নেওয়া যায় না। আশা করি কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেবে।' 

আধ ঘণ্টা পরই টুইটটি মুঁছে ফেলেন নাতাশা। সেই সঙ্গে তিনি ওই কৃষ্ণাঙ্গ নারী যে সংস্থার অধীনে কাজ করেন, তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। অনুরোধ করেন, যাতে ওই নারীর চাকরি না যায়। সেখান থেকে তিনি সেই আশ্বাসও পান। পরে তাঁর আগামী বইয়ের প্রকাশনা সংস্থা রেয়ার বার্ড বুকস-এর এক কর্মকর্তা রবার্ট জেসন পিটারসনের সঙ্গেও কথা বলেন। তাঁকে তিনি ব্যাখ্যা করেন, যেহেতু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বড় হননি, তাই কিছু ভুল বোঝাবুঝির জন্য এই টুইট করে ফেলেছিলেন। পিটারসনও তাঁকে আশ্বাস দেন, পাশে থাকার।

কিন্তু দুপুরেই প্রকাশনা সংস্থা একটি বিবৃতি প্রকাশ করে বলে, কৃষ্ণাঙ্গ নারী প্রসঙ্গে যা লেখা হয়েছে তা 'ভয়ঙ্কর'। এরপরই ফের একটি বিবৃতি দিয়ে রেয়ার বার্ড বুকস জানায়, তাঁরা নাতাশার নতুন বই প্রকাশ আপাতত স্থগিত রাখছেন।

রেয়ার বার্ড বুকসের এই সিদ্ধান্তের ফলে নাতাশা মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন। এমনকি নাতাশা হুমকিও পেতে থাকেন অজ্ঞাত ব্যক্তিদের কাছ থেকে। এরপর শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফর্নিয়ায় রেয়ার বার্ড বুকসের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন নাতাশার আইনজীবী। দাবি করা হয়, ১৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ।

নাতাশার টুইটার পেজটিও এখন আর পাওয়া যাচ্ছে না।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা