kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৮ জুন ২০১৯। ৪ আষাঢ় ১৪২৬। ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

ইতিহাসে প্রথমবার এইডস আক্রান্ত পর্বতারোহীর এভারেস্ট বিজয়!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ মে, ২০১৯ ১৮:৩৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইতিহাসে প্রথমবার এইডস আক্রান্ত পর্বতারোহীর এভারেস্ট বিজয়!

এভারেস্ট জয় করা আর যুদ্ধ জয় করা একই ব্যাপার। ভয়ংকর সুন্দর এই পর্বতশৃঙ্গে উঠতে গিয়ে প্রতিবছর অনেক মানুষ প্রাণ হারায়।  এবার বিশ্বের প্রথম এইডস আক্রন্ত ব্যক্তি হিসেবে পৃথিবীর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্ট জয় করে ইতিহাস গড়লেন নেপালের গোপাল শ্রেষ্ঠা। ৫৬ বছর বয়সী এই পর্বতারহী নেপালের পোকহারার বাসিন্দা। নেপালের সরকারি সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানানো হয়েছে, বুধবার সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে গোপাল শ্রেষ্ঠা এভারেস্টের চূড়ায় পৌঁছান।

২৫ বছর আগে ইনজেকশনের ছুঁচের দ্বারা গোপালের শরীরে প্রবেশ করেছিল এই মারণ রোগ। তার পরেও হার মানেননি গোপাল। নেপালের জাতীয় ফুটবল দলের প্রক্তন খেলোয়াড় গোপাল শ্রেষ্ঠার এটা দ্বিতীয় প্রচেষ্টা ছিল। এর আগে ২০১৫ সালে প্রথমবার এভারেস্ট অভিযানের প্রস্তুতি করে ছিলেন গোপাল। কিন্তু সেই বছরই নেপালের ভয়াবহ ভূমিকম্পের জেরে এভারেস্ট অভিযান বাতিল করতে হয় গোপাল শ্রেষ্ঠাকে।

বর্তমান সমাজে এইচআইভি আক্রান্ত শিশুদের সঠিক শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে তাদেরকে সঠিক লক্ষ্য পৌঁছে দেওয়ার তাগিদেই অভিযোন করেন এই ৫৬ বছর বয়সি অভিযাত্রী। গোপাল শ্রেষ্ঠা এর আগে ২০১৩ সালে ৫ হাজার ৪১৭ মিটার উঁচু লা পাস জয় করেন। ২০১৪ সালে জয় করেন আইসল্যান্ড পিক এবং ২০১৬ সালে জয় করেন ভ্রিজিন পিক। গোপাল শ্রেষ্ঠার এই অভিযান বিশ্বের এইচআইভি আক্রন্ত মানুষদের কাছে এক নতুন উদাহরণ সৃষ্টি করল কখনও না হার মানার। 

ন্যাশনাল সেন্টার ফর এইডস অ্যান্ড এসটিডি কন্ট্রোলের সমীক্ষা অনুসারে নেপালে বর্তমানে ৩১ হাজার ২০ জন এইচআইভি আক্রান্ত মানুষ রয়েছেন। গোপাল শ্রেষ্ঠার এই অভিযান শুধু নেপালেরই নয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সমীক্ষা অনুসারে সারা বিশ্বের প্রায় ২৫২ কোটি ৯২ লক্ষ ৫০ হাজার মানুষের সামনে বাঁচার নতুন রাস্তা খুলে দিয়েছে। এইডস মানেই যে জীবনের শেষ দেখে ফেলা নয়; তা প্রমাণ করে দিয়েছেন গোপাল শ্রেষ্ঠা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা