kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

নারীদের রেস্টরুমে গোপন ক্যামেরা যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি অফিসে, যুবক গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ মে, ২০১৯ ১৩:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারীদের রেস্টরুমে গোপন ক্যামেরা যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি অফিসে, যুবক গ্রেপ্তার

নারীদের রেস্টরুমে গোপন ক্যামেরা রাখার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব ভেটেরানস অ্যাফেয়ার (ভিএ) কার্যালয়ের এক কর্মচারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার কর্মচারীর নাম অ্যালেক্স গ্রিনলি (২৪)। 

হোয়াইট হাউসের কাছে অবস্থিত ওই কার্যালয়ে নারীদের রেস্টরুমে চার মাস আগে দুটি গোপন ক্যামেরা পাওয়া যায়। ক্যামেরা দুটি গ্রিনলি সেখানে  রেখেছিলেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। 

এ ঘটনায় ওই কর্মচারীর বিরুদ্ধে পাঁচটি পৃথক অভিযোগ আনা হয়েছে।

হোয়াইট হাউসের আধা মাইল পূর্বে অবস্থিত ভেটেরানস অ্যাফেয়ার ভবন। গত ২৫ জানুয়ারি ওই ভবনে একটি স্টলের নিচে গোপন ক্যামেরা আবিষ্কার করেন এক নারী। দেশটির ওয়াশিংটন ডিসি-তে অবস্থিত সুপিরিয়র কোর্ট বিষয়টি তদন্ত শুরু করে।

তদন্তকারীদের ওই নারী বলেন, ঘটনার দিন তিনি রেস্টরুমের ভেতর একটি স্টলের নিচে গোপন ক্যামেরা দেখতে পান। এ সময় বাইরে অ্যালেক্স গ্রিনলি (২৪) নামের অভিযুক্ত যুবককে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেন। এ সময় ওই যুবক তাঁকে জিজ্ঞেস করেন তিনি পেপার টাওয়েল আনতে মেয়েদের রেস্টরুমের ভেতর যেতে পারেন কিনা। 

কিন্তু, ওই ঘটনার ঠিক এক ঘণ্টা আগে ওই নারী গ্রিনলিকে ১২ তলায় অবস্থিত একই রেস্টরুম থেকে বেরিয়ে যেতে দেখেছিলেন। সেখানে তিনি কী করছিলেন-  জিজ্ঞেস করা হলে গ্রিনলি জবাবে বলেছিলেন, ছেলেদের রেস্টরুমে পেপার টাওয়েল ছিল না বলে তিনি সেখানে এসেছিলেন।

বিষয়টি সন্দেহজনক হওয়ায় কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দেন ওই নারী। ওই অভিযোগের ভিত্তিতে ওইদিনই ক্যামেরাটি জব্দ করেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

এর তিন দিন পর একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে। অন্য এক নারী সেদিন একই রেস্টরুমের টয়লেটে দেখতে পান দ্বিতীয় ক্যামেরাটি।

তদন্তকারীদের প্রশ্নের জবাবে গ্রিনলি বলেন, ক্যামেরার বিষয়টি তার জানা নেই। কিন্তু উদ্ধার করা ক্যামেরা দুটি তার ছিল- এ প্রসঙ্গে কোনও সদুত্তর দিতে পারেননি তিনি।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, পাঁচজন নারীর অভিযোগ ছিল গ্রিনলির বিরুদ্ধে। এর মধ্যে একজন নারী অভিযোগ দিয়েছিলেন একাধিকবার।

মঙ্গলবার পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে অভিযুক্ত  গ্রিনলিকে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে এক বছরের জেল এবং আড়াই হাজার ডলার জরিমানা হতে পারে। 

সূত্র : এনবিসি নিউজ  

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা