kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২০ জুন ২০১৯। ৬ আষাঢ় ১৪২৬। ১৬ শাওয়াল ১৪৪০

বিশ্বের যে পাঁচ স্থানে নারীদের প্রবেশে আজও 'লজ্জার' নিষেধাজ্ঞা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ মে, ২০১৯ ২১:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিশ্বের যে পাঁচ স্থানে নারীদের প্রবেশে আজও 'লজ্জার' নিষেধাজ্ঞা

ভারতে শবরীমালা-বিতর্ক সম্পর্কে সংবাদমাধ্যমের সৌজন্যে অনেকেই জানতে পেরেছেন। কেরালার ওই মন্দিরে নারীদের প্রবেশে সুপ্রিম কোর্টের ছাড়পত্র ঘিরে তুমুল সংঘর্ষ শুরু হয়েছিল। 

এখনো এই বিতর্কের স্পষ্ট সমাধান মেলেনি। অবশ্য শবরীমালা ছাড়াও বিভিন্ন দেশে অনেক স্থান রয়েছে, এখনো যেখানে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

মাউন্ট ওমিন 
২০০৪ সালে বিশ্ব হেরিটেজের অংশ হিসেবে চিহ্নিত হয়। তার পরেও জাপানের মাউন্ট ওমিনে নারীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ। কারণ হিসেবে বলা হয়, নারীদের উপস্থিতি পুরুষদের মনে লোভ সৃষ্টি করতে পারে। সেই যুক্তির ব্যাপারে অনেক বিতর্ক রয়েছে। 

মাউন্ট অ্যাথোস 
গ্রিসের মাউন্ট অ্যাথোসেও নারীদের প্রবেশ নিষেধ। এক সময় পর্যন্ত পুরুষ প্রবেশ নিষিদ্ধ ছিল সেখানে। তবে ১৯৯৮ সালে বিশ্ব হেরিটেজ তালিকায় স্থান পাওয়া এই পাহাড়ি এলাকার মঠ, আশ্রমগুলোতে নারী প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। 

ম্লিমাদজি বিচ 
আফ্রিকার দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত সমুদ্র সৈকত আসলে কমোর দ্বীপের অংশ। সেখানকার ধর্মীয় আশ্রমগুলোতে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। 

ওকিনোশিমা 
জাপানের পবিত্র এলাকাগুলোর মধ্যে অন্যতম ওকিনোশিমা। তবে সেখানে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। পুরুষদের ক্ষেত্রেও সারা বছর প্রবেশের অনুমতি থাকে না। প্রতি বছর মে মাসে প্রবেশের অনুমতি পান তারা।

হোয়াইট জেন্টলম্যানস ক্লাব 
কার্যত ধনকুবেরদের ক্লাব। ১৯ শতকে জনপ্রিয়তা লাভ করেছিল। বর্তমানে এর অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। তবে এক সময় অত্যন্ত আলোচনায় থাকত এই ক্লাব। নিজের ব্যাচেলর পার্টি এই ক্লাবে উদযাপন করেছিলেন প্রিন্স চার্লস। এখানেও নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা