kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২০ জুন ২০১৯। ৬ আষাঢ় ১৪২৬। ১৬ শাওয়াল ১৪৪০

গর্ভবতী খুন, হাসপাতালে পেট কেটে বের করা হলো সন্তান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ মে, ২০১৯ ২০:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গর্ভবতী খুন, হাসপাতালে পেট কেটে বের করা হলো সন্তান

শিকাগোর একটি হাসপাতাল। ভেতরে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে একটি শিশু। গত মাসে দুর্বৃত্তরা হত্যা করেছে তার মাকে। হত্যাকাণ্ডের সময় শিশুটি ছিল মায়ের পেটে। মায়ের মৃত্যু হলে পেট কেটে বাচ্চাটিকে আনা হয় বাইরের আলোয়। কিন্তু সেই থেকে চোখ তার বন্ধ ছিল।

দুর্বৃত্তদের সঙ্গে লড়ার সুযোগ পাননি মা মারলিন ওচোয়া লোপেজ। কিন্তু শিশুটি এখনও লড়ছে। এক আশ্চর্য জীবনীশক্তি। সবচেয়ে বড় খবরটি হলো, শিশুটি চোখ খুলেছে। আর সাথে সাথেই আনন্দ উচ্ছ্বাস বয়ে গেছে চারপাশের মানুষের চোখে-মুখে। কেন এই উচ্ছ্বাস- তার পেছনেও রয়েছে কারণ। 

গত রবিবার শিশুটির ছবি তোলেন এক নবীন যাজক। ছবিতে দেখা যায়, হতভাগ্য বাচ্চাটিকে কোলে নিয়ে বসে আছেন বাবা ইয়োভানি লোপেজ। নাক-মুখের চারপাশ ঘিরে স্যালাইনের নল। বাবার দুই বাহুতে সে তখন ঘুমোচ্ছে। কিন্তু ছবিটি নেওয়ার পরপরই চোখ খোলে নবজাতক। একইসঙ্গে সোল্লাসে চেচিয়ে ওঠেন বাবা, 'চোখ খুলেছে, চোখ খুলেছে।'

সিসিলিয়া গার্সিয়া নামের ওই যাজক মার্কিন সংবাদ মাধ্যম সিএনএনকে বলেন, 'আমরা কেবল প্রার্থনাই করছিলাম, প্রার্থনাই করছিলাম; ওমনি চোখ খুলল সে। আর তার বাবা বলে উঠলেন, 'ওহ মাই গড, সে চোখ খুলেছে!' 

গার্সিয়া বলেন, 'ঈশ্বরের অশেষ কৃপা। আমরা তাঁর আনুকূল্য পেয়েছি। যদিও পেছনের ঘটনাটি সত্যিই এক ট্রাজেডি।'

গার্সিয়া আরো বলেন, 'মারলিন ওচোয়া লোপেজকে হত্যার খবর যখন শুনি, শোকে মুহ্যমান হয়ে পড়ি। ১৯ বছর বয়সী এই নারীর পেটে তখন সন্তান। এই অবস্থায়ই তাঁকে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনা শুনে মনে হচ্ছিল কোনও হরোর মুভি দেখছি।' 

শিকাগো পুলিশ বলেছে, ওচোয়া লোপেজকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। তাঁর পেট কেটে বের করা হয়েছে শিশুটিকে। হত্যাকাণ্ডের পর বাড়ির পেছনে থাকা গার্বেজ ক্যান থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সূত্র : সিএনএন 

মন্তব্য