kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৩ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

বেশি বয়সে বাবা হতে চান? ৩৫-এর আগেই শুক্রাণু জমান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ মে, ২০১৯ ২০:২০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বেশি বয়সে বাবা হতে চান? ৩৫-এর আগেই শুক্রাণু জমান

বয়সের সাথে সাথে পুরুষের শুক্রাণুর গুণগত মান কমতে থাকে। তাই যারা দেরিতে বাবা হতে চান, তাঁদের উচিত বয়স ৩৫ বছর হওয়ার আগেই শুক্রাণু সংরক্ষণের প্রক্রিয়া জানা। এমনটিই বলছেন যুক্তরাষ্ট্রের রুটগার্স বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।

নতুন এক পর্যালোচনামূলক নিবন্ধে এসব কথা বলা হয়েছে। ম্যাচিউরিটাস জার্নালে সম্প্রতি নিবন্ধটি প্রকাশিত হয়েছে। প্রজনন, গর্ভাবস্থা এবং শিশু স্বাস্থ্যের ওপর বাবার বয়সের প্রভাব নিয়ে গত ৪০ বছরের গবেষণার পর্যালোচনা স্থান পেয়েছে এতে।

গবেষকরা লিখেছেন, 'বেশি বয়সে বাবা হওয়ার সামগ্রিক প্রতিকূল প্রভাব রয়েছে- এর পেছনে রয়েছে যথেষ্ট প্রমাণও। দেরিতে বাবা হলে শুক্রাণু সংরক্ষণের ব্যাপারটি আমাদের সামাজিক দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। নিকট ভবিষ্যত সূচকেও এটি গুরুত্বপূর্ণ। 

রাটগার্স রবার্ট উড জনসন মেডিক্যাল স্কুলে উইমেন'স হেলথ ইনস্টিটিউট-এর পরিচালক ধাত্রীবিদ্যা-স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ গ্লোরিয়া বাচমান বলেন, 'আমাদের লক্ষ্য হলো বয়সের সাথে সাথে যেসব ঝুঁকি তৈরি হয় সেগুলো নিয়ে আলোচনা করা।' 

গত বছর প্রকাশিত এক নিবন্ধে তিনি নারীদের উদ্দেশ্যে তুলে ধরেছিলেন, ফ্রিজের ডিম কীভাবে তাঁদের জন্য ক্ষতিকর হয়।

গবেষকরা লিখেছেন, গত ৪০ বছরেরও বেশি সময় ধরে দেখা গেছে এই সময় নারী-পুরুষ উভয়েই বেশি বয়সে শিশুর বাবা-মা হয়েছেন। একই সময় যুক্তরাষ্ট্রে বেশি বয়সে বাবা-মা হওয়ার প্রবণতা প্রায় ৪ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

যাইহোক, সন্তানের বাবা হওয়ার ক্ষেত্রে বেশি বয়স বলতে ঠিক কোন বয়সকে বুঝায়- বিশেষজ্ঞদের ভেতর তা নিয়ে মতপার্থক্য রয়েছে। কোনও কোনও গবেষণায় বলা হয়েছে ৩৫ বছরের পরই বেশি বয়স ধরা শুরু হয়। আবার কোনও কোনও গবেষণায় ৪৫ বছর বয়সকে বেশি হিসেবে দেখানো হয়েছে। নারীদের ক্ষেত্রে সন্তান ধারণে বয়সের সীমা ৩৫। এরপর তাঁদের সন্তান ধারণের ক্ষমতা দ্রুত কমতে থাকে।

আইভিএফ গবেষণা পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, ৫০ বছরের বেশি বয়সে পুরুষদের জন্মদানের হার কমেছে, বেড়েছে গর্ভপাত। এই সময় বাবাদের শুক্রাণুতে অপরিণত শিশুর জন্ম হয়। এসব শিশুর ওজন কম থাকে এবং বেশিরভাগই ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে রাখার ঝুঁকি থাকে। বহু গবেষণায় দেখানো হয়েছে, বেশি বয়সী বাবা-মায়ের শিশুরা সিজোফ্রেনিয়া, অটিজমের মতো সমস্যায় আক্রান্ত হয়।

সুতরাং, এ ধরনের ঝুঁকির ক্ষেত্রে শুক্রাণু সংরক্ষণ একটি ভালো ধারণা। তবে এ ক্ষেত্রে কিছু খরচের ব্যাপারও রয়েছে। শুক্রাণু সংরক্ষণের জন্য একজন পুরুষের বছরে এই খরচের পরিমাণ হতে পারে সাড়ে চার শ ডলার।

সূত্র : দ্য স্টার  

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা