kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

আঙুলের ছাপে টাকা মিলবে এটিএমে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মে, ২০১৯ ০৮:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আঙুলের ছাপে টাকা মিলবে এটিএমে

পিন নম্বর লাগবে না। তাই তা কষ্ট করে মনে রাখার দরকারও হবে না। লাগবে না এটিএম কার্ডও। ফলে যত্ন করে সেই কার্ড রাখার প্রয়োজনও হবে না। শুধু আঙুলের ছাপ দিয়েই এবার এটিএম থেকে টাকা তোলা যাবে। যেখানে বিদ্যুৎ পৌঁছায়নি বা সারা দিনে মাত্র কয়েক ঘণ্টা বিদ্যুৎ থাকে, সেখানে এই এটিএম চালানো যাবে অনায়াসেই সৌরশক্তিতে।

সম্প্রতি ‘জনতা সোলার এটিএম’ নামের এই প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছেন কলকাতার একদল গবেষক। তাঁদের গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়েছে আন্তর্জাতিক সাময়িকী ‘ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অব সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং রিসার্চে’। আগামী ছয় থেকে ১২ মাসের মধ্যে ভারতে চালু হতে যাচ্ছে এ এটিএম।

গবেষক শান্তিপদ গণচৌধুরী জানিয়েছেন, এ জনতা সোলার এটিএম যেহেতু চালানো হবে সৌরশক্তিতে, তাই বিদ্যুত্শক্তির সাশ্রয় হবে। তা ছাড়া কোনো এলাকায় বিদ্যুত্ না পৌঁছালেও, সেখানে সৌরশক্তিতে চলা এ এটিএমকে পৌঁছে দেওয়া যাবে।

গবেষকরা দেখেছেন, ‘স্ট্যান্ডবাই মোড’-এ থাকার সময় (যখন এটিএমের স্ক্রিনে আলো ফুটবে না) সর্বোচ্চ ৪০ ওয়াট সৌরশক্তি খরচ হবে। আর টাকা তোলার সময় খরচ হবে, খুব বেশি হলে ১৫০ ওয়াট। অর্থাত্ একটি কম্পিউটার চালাতে যতটুকু বিদ্যুত্শক্তি লাগে,  এই এটিএমে লাগবে তার দ্বিগুণেরও কম। 

সৌরশক্তিতে চলা এ এটিএম থেকে টাকা তোলার পদ্ধতিও খুব সহজ, যা নিরক্ষর বা প্রবীণদের পক্ষেও মোটেই অসুবিধার হবে না। পিনের বদলে থাকবে একটি স্টিকার, যা মোবাইলের গায়েও লাগিয়ে রাখা যাবে। অথবা থাকবে একটি টোকেন, যা পকেটে, মানিব্যাগে রাখতে অসুবিধা হবে না। হারিয়ে গেলেও  বিকল্প টোকেন মিলবে ব্যাংকে। কিন্তু সেই স্টিকার বা টোকেন যদি হারিয়ে ফেলেন, এর পরও তা বিপদের কারণ হবে না।
সূত্র : আনন্দবাজার।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা