kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ মে ২০১৯। ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৫ রমজান ১৪৪০

৪০ হাজার কাঠখণ্ডে গিফট শপ কাতারের জাতীয় জাদুঘরে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ মে, ২০১৯ ১৩:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৪০ হাজার কাঠখণ্ডে গিফট শপ কাতারের জাতীয় জাদুঘরে

ভেতরে প্রবেশ করলে নিশ্চিত মায়াজালে আটকা পড়বেন আপনিও। চট করে মনে হবে, যেন ভুল করে ঢুকে পড়েছেন কাতারের দাহল আল মিসফির গুহায়। 

গুহার প্রাকৃতিক পরিবেশ থেকে যদিও বেরিয়েও আসবেন। কেননা, দেয়াল সংলগ্ন তাকে সাজানো উপকরণগুলো বিভ্রম ভেঙে দেবে। তবে চোখ আপনার স্থির হবে মনোমুগ্ধকর স্থাপত্যিক সৌন্দর্যে।  

সম্প্রতি শেষ হয়েছে কাতারের জাতীয় জাদুঘরের গিফট শপের অভ্যন্তরীণ নকশা। সিডনিভিত্তিক বাটিক আর্কিটেকচার ফার্ম কৈইচি তাকাদা আর্কিটেক্টস কাজটি সম্পন্ন করেছে। 

গিফট শপের কাঠের দেয়ালের নকশা করা হয়েছে কাতারে অবস্থিত দাহল আল মিসফির (কেইভ অব লাইট) নামের গুহা প্রাচীরের অনুকরণে। গুহার ওই দেয়াল মূলত সুতার মতো জিপসাম স্ফটিক থেকে তৈরি। গুহাটির ভেতর রয়েছে চাঁদের মতো আলোর ছটার উপস্থিতি। 

স্থাপত্যিক প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তারা চেয়েছে জৈব স্থাপত্য কাঠামোকে মানুষের মধ্যে  ফিরিয়ে আনতে। এ বিষয়ে তাঁদের দৃষ্টিভঙ্গি হলো এমন নকশা তৈরি করতে হবে, যা মানুষ ও প্রকৃতির সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করে। 

গিফট শপের এই নকশায় ৪০ হাজার কাঠের টুকরো ব্যবহৃত হয়েছে। টুকরোগুলো বসানো হয়েছে এমনভাবে যেন পাজল খেলার ধাঁধাঁ। কাঠের টুকরোগুলো তৈরি ইতালিতে। প্রতিটি টুকরোয় রয়েছে একটি অনন্য নকশা। নকশাকৃত টুকরোগুলো কেবল সঠিক পরিপূরক টুকরোর সঙ্গে স্থাপন করা যায়।

ইতালির মাস্টার কার্পেন্টার ক্লদিও দেভোতো এবং তাঁর দলের কারিগররা কাঠের টুকরাগুলো হাতে হাতে বসিয়েছেন গিফট শপের দেয়ালে। 

সূত্র : কনটেম্পোরিস্ট 

মন্তব্য