kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ মে ২০১৯। ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৫ রমজান ১৪৪০

পদ্মাপাড়ে অভূতপূর্ব জাগরণ, তারুণ্যের ঐক্য ...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ মে, ২০১৯ ১৭:০২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পদ্মাপাড়ে অভূতপূর্ব জাগরণ, তারুণ্যের ঐক্য ...

প্রভাবশালী মহলের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার পদ্মাপারের তরুণরা অনলাইনে অভূতপূর্ব এক আন্দোলন শুরু করেছে। শ্লোগান, লাল রঙা স্টিকার, কমেন্ট কমেন্টে ভরে উঠেছে এই জনপদের হাজার হাজার তরুণের ফেসবুকের ওয়াল।

অবৈধ ড্রেজিংয়ের কারণে বিপন্ন হরিরামপুর রক্ষাবাঁধ বাঁচাতে দলমত নির্বিশেষে তাদের এই মাঠে নামা।

ড্রেজিংয়ের কারণে সৃষ্ট ভাঙনের হাত থেকে হরিরামপুরকে বাঁচানোর আকুতি জানিয়ে খোলা হয়েছে ফেসবুক পেইজ, গড়ে উঠেছে ফেসবুক গ্রুপ এর বাইরে নিজ নিজ ফেসবুক আইডিতে শোভা পাচ্ছে ড্রেজার বিরোধী অবস্থান এবং সংহতি। লেখা হচ্ছে কবিতা, ছড়া, শ্লোগান।

এদের এই আন্দোলন দ্রুততার সাথে জনসম্পৃক্ততা অর্জন করছে। সাহসী হয়ে উঠছে ভাঙনের শঙ্কায় দিনকাটানো সাধারণ মানুষ।

শুধু ফেসবুক নয়, গণস্বাক্ষর সংগ্রহ, মানববন্ধন, মিছিল সমাবেশ করার কর্মসূচিও তারা দেবে বলে জানাচ্ছে।

গত বর্ষায়ও অপরিকল্পিত, অবৈধ ড্রেজিংয়ের কারণে এই উপজেলার নদী তীরবর্তী শত শত বাড়িঘর পদ্মায় বিলীন হয়েছে। এবার ড্রেজিংয়ের কারণে এই ভাঙন হরিরামপুর রক্ষাবাঁধের অস্তিত্বকেই বিলীন করবে বলে সবার শংকা। তাই তাদের এই প্রতিবাদ।

আত্মকেন্দ্রিকতার সময়ে দলমত, ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে পদ্মার ভাঙনে বিপন্ন জনপদের তরুণদের এই অভূতপূর্ব জাগরণ বিস্ময়কর।

তরুণেরা জাতীয় দৈনিক এবং টিভি চ্যানেলগুলোর সহায়তা কামনা করেও পোস্ট দিচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ১শ বছরে এই উপজেলার অসংখ্য গ্রাম পদ্মাগর্ভে বিলীন হয়েছে। বাস্তুচ্যুত হয়েছে লাখো মানুষ। গত কয়েক বছরে এই ভাঙন রক্ষাবাঁধ নির্মান এবং প্রকৃতিগত কারণে কমে এসেছিল। 

- সাইফুদ্দিন আহমেদ নান্নু, গণমাধ্যমকর্মী

মন্তব্য