kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

হিজাবই শায়মা ইসমাঈলের প্রতিবাদ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ১৫:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হিজাবই শায়মা ইসমাঈলের প্রতিবাদ

দেশে দেশে হিজাব বা বোরকা পরা নিষিদ্ধ হচ্ছে। সন্ত্রাসী হামলার কারণে মুসলমানদের বিরুদ্ধে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। মুসলিম বিরোধীরা করছে বিক্ষোভ। তবে মুসলিম বিরোধী বিক্ষোভকারীদের সামনে বসে ২৪ বছর বয়সী এক নারী হিজাব পরে শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দিয়েছেন বিশ্বব্যাপী। আর এই ছবটিই ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। 

শায়মা ইসমাঈল নামে ওই নারী ওয়াশিংটনে ডি.সিতে একটি ইসলামিক সার্কেলে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন। তখন তিনি দেখলেন সম্মেলন কেন্দ্রের বাইরে একটি দল মুসলিমদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছে। তখন তিনি দলটির মুখোমুখি হওয়ার পরিবর্তে নীরব প্রতিবাদ করার সিদ্ধান্ত নিলেন। তিনি মাত্র কয়েক ফুট দূরে হিজাব পরে একটি হাসিখুশি ছবি তুলার সিদ্ধান্ত নিলেন। 

শায়মা ইসমাঈল জানান, সম্মেলন কেন্দ্রের বাইরে মুসলিমদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা অবস্থানকারীদের কারণে চিন্তিত ছিলেন সম্মেলনে আসা সবাই।

তিনি বলেন, অবস্থানকারীদের মধ্যে একজনের পড়া একটি শার্টে লিখা ছিলো ‘আপনার যিশুকে প্রয়োজন’। শুধু তাই নয় তাদের মাথায় পড়া টুপিতে এরকম কিছু বার্তা লিখা ছিলো। 

অবস্থানকারীদের মধ্যে একজন বলছিলো, ইসলাম হলো রক্ত ও খুনের ধর্ম। যিশু সমস্ত মানবজাতির মুক্তিপণ হিসেবে রক্ত দিয়েছেন। তাদরে প্রতিবাদের কিছু চিহ্ন উল্লেখ করে, জোয়ান ৩: ১০ নং পদকে। যেখানের বলা হয়েছে, আমরা এই ভাবে এইটা জানি যে, কে ঈশ্বরের সন্তান এবং কে শয়তানের সন্তান। যে সঠিক কাজ করে না, সে ঈশ্বরের সন্তান নয়। তারাও নয় যারা তাদের ভাই ও বোনকে ভালোবাসে না।

শায়মা ইসমাঈল বলেন, যখন তারা ঘৃণ্য বক্তৃতা দিচ্ছিল তখন আমি হেঁটে যাচ্ছিলাম। ঘটনাস্থলে থাকা এক পুলিশ কর্মকর্তা জিজ্ঞাসা করলাম যে, আমি তাদের সামনে দাঁড়াতে পারি কিনা। কিন্তু পুলিশ কর্মকর্তা আমাকে দাঁড়াতে নিষেধ করলো। তখন আমি তাদের অবাধ্য হতে চাইলাম। আমি এক বন্ধুর ক্যামেরা দিয়ে কয়েক ফুট দূরে গিয়ে একটি শান্তি সাইন ছুঁড়ে ছবি তুললাম।

পরে তিনি এই ছবিটি টুইটারে পোস্ট করেন। মুহূর্তের মধ্যে এই ছবিটি ভাইরাল হয়ে যায়। ইন্সস্ট্রগ্রামে এই ছবিটি ৬৩ হাজারেরও বেশি মানুষ লাইক দিয়েছে। আর এই ছবিটিকে ২৬ হাজার মানুষ টুইটারে লাইক দিয়েছে।

মন্তব্য