kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

বাংলাদেশে স্মৃতিভ্রংশ রোগী বাড়ছে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০৮:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশে স্মৃতিভ্রংশ রোগী বাড়ছে

ডিমেনশিয়া বা স্মৃতিভ্রংশ এমন একটি রোগ যার ফলে রোগী কিছু মনে রাখতে পারে না। এমনকি এ রোগের কারণে একটু আগেই করা কাজ ভুলে যায় অনেকে। রোগটি নিয়ে গতকাল ঢাকায় একটি সেমিনারের আয়োজন করে বাংলাদেশ আলঝেইমার সোসাইটি।

সংগঠনের সদস্য সাবেক এমপি সেলিনা জাহান লিটা জানান, তাঁরা অনেক দিন ধরেই বাংলাদেশে রোগটি সম্পর্কে সচেতনতা তৈরির চেষ্টা করছেন। কিন্তু রোগটি সরকারি বা বেসরকারি কোনো দিক থেকেই যথাযথ গুরুত্ব এখনো পয়নি।

এক হিসাবে দেখা যায়, ২০১৫ সালে বাংলাদেশে ডিমেনশিয়ায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল পাঁচ লাখ, যা আগামী ২০৩০ সালে বেড়ে ৯ লাখ হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আলঝেইমার সোসাইটির হিসাবে, ২০৫০ সাল নাগাদ এ রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২২ লাখ হওয়ার শঙ্কা আছে।

সেলিনা জাহান বলেন, ‘অর্থাৎ দিন দিন রোগের প্রকোপ বেড়েই চলেছে। সে হিসেবে প্রতিকারের ব্যবস্থা খুব কমই। মানুষকে সচেতন করা দরকার। তাহলে আক্রান্ত হলেও মানুষ বৃদ্ধ বয়সে করুণ পরিণতির মুখোমুখি হবে না।’

আলঝেইমার সোসাইটির তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশে ষাট বছরের বেশি বয়সের মানুষ এ রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। আবার কিছু ক্ষেত্রে ৪০-৫০ বছর বয়সের মধ্যেও অনেককে আক্রান্ত হতে দেখা যাচ্ছে। নিম্নবিত্তের পাশাপাশি উচ্চবিত্তের মানুষও রোগটিতে আক্রান্ত হচ্ছেন।

সেলিনা জাহান বলেন, ‘বাংলাদেশে বিশেষ করে যারা দারিদ্র্যসীমার নিচে আছেন তাঁদের এ রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি। উচ্চবিত্ত অনেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন কিন্তু মূলত রোগটির ক্ষেত্রে বেশি দরকার সচেতনতা। ডিমেনশিয়াা নিয়ে সরকারিভাবে কোনো উদ্যোগ চোখে পড়ে না। রোগটির তেমন চিকিৎসা নেই। কিন্তু শুধু চিকিৎসার বিষয় নয়, রোগটি নিয়ে সচেতনতা তৈরি হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। হাসপাতালগুলোতে ডিমেনশিয়া কর্নার তৈরি করার দরকার। পাশাপাশি ডাক্তার ও নার্সদের তাঁদের করণীয় সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা থাকা উচিত। 
সূত্র : বিবিসি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা