kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৬ নভেম্বর ২০২০। ১০ রবিউস সানি ১৪৪২

পুলিশ জীবনের পূর্ণতা ঠিক এখানেই...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১২:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পুলিশ জীবনের পূর্ণতা ঠিক এখানেই...

মাঝে মাঝে মনে হয় 'আমাদের জীবন পূর্ণ' এই কথাটি আসলে প্রতীকী!

পূর্ণতা আসলে কোথাও নেই। আর নেই বলেই আমাদের এত চেষ্টা।

সকালে থানার গেইটের কাছেই একজন অসুস্থ বৃদ্ধ চাচাকে পেলাম; বয়স আনুমানিক ৭০ বছর। তিনি কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন।

কারো সাথে কথা বলছেন না, কাউকে ধরতে দিচ্ছেন না। অদ্ভূত বিষয়টি ঘটলো তখন, যখন তিনি দুইজন পুলিশকে তাকে ছুঁতে দিলেন! ঠিকমত দাঁড়াতে না পারা চাচাকে কিছু খাবেন কিনা প্রশ্ন করতে হ্যাঁ-সূচক সম্মতি দিলেন। রুটি, কলা, চায়ের কথা বলার পর তাতেও একমত হলেন।

নিজের শরীরে হাত দিতে না দেয়া অসুস্থ মানুষটি পুলিশের হাতেই রুটি, কলা খেলেন। এই নির্ভরতাটুকু বিস্মিত করলো।

যতটুকু জানা গেলো এই চাচার কাছের কেউ নেই। সবসময় আসলে কাছের কেউ থাকতেও হয় না। বৃদ্ধ চাচার শারীরিক অসুস্থতার জন্য তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলো। বিশ্বাস করি সেখানেও পুলিশের মত দূরের কিছু ডাক্তার, চাচার আপনজনের চেয়েও বেশি কেউ হয়ে উঠবেন এবং হচ্ছেনও প্রতিনিয়ত।

বলছিলাম পূর্ণতা'র কথা! আমাদের জীবনের প্রতীকী পূর্ণতা, বাস্তবিক পূর্ণতায় এসে দাঁড়ায় যখন মানসিক ভারসাম্যহীন একজন বৃদ্ধ চাচা তাঁর অবলম্বন হিসেবে পুলিশকে বেছে নেন।

আহা! জীবন! ভালবাসায় পূর্ণ জীবন।

পুলিশ জীবনের পূর্ণতা ঠিক এখানেই।

ইফতেখায়রুল ইসলামের (অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, ডিএমপি) ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা