kalerkantho

শনিবার  । ১৯ অক্টোবর ২০১৯। ৩ কাতির্ক ১৪২৬। ১৯ সফর ১৪৪১                     

ছাত্রীর মন ভালো করতে নিজের চুল কেটে ফেললেন শিক্ষিকা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৮:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছাত্রীর মন ভালো করতে নিজের চুল কেটে ফেললেন শিক্ষিকা

হঠাৎ করেই স্কুলে আসার প্রতি উৎসাহ হারিয়ে ফেলে ছোট্ট মেয়েটা। বেশ কিছুদিন ধরে বিষয়টি খেয়াল করেছিলেন তার স্কুলের শিক্ষিকা। 

তারপর তিনি বুঝতে পারেন, লাগাতার ওই মেয়েটির পেছনে লাগার কারণেই স্কুলের প্রতি উৎসাহ হারিয়ে ফেলছিল সে। চুল ছোট বলে লাগাতার মেয়েটিকে ক্ষেপিয়ে যাচ্ছিল তার সহপাঠীরা। 

কিন্তু কাউকে বকাঝকা না করে অভিনব উপায়ে ওই খুদে শিক্ষার্থীর পাশে দাঁড়ালেন শিক্ষিকা। ওই শিশুটির মতো করে নিজের চুল কেটে ফেললেন তিনিও।

ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে। কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষিকা শ্যানন গ্রিম জানান, বেশ কিছুদিন ধরে তিনি খেয়াল করছিলেন প্রিসিলা পেরেজ নামের সেই ছাত্রী মাঝে মাঝেই স্কুলে আসছে না। স্কুলে আসার প্রতি খুব একটা উৎসাহও নেই তার। 

তখনই তার সঙ্গে কথা বলে তিনি জানতে পারেন, তার চুল ছোট বলে সহপাঠীরা প্রায় তাকে ‘ছেলে’ বলে ক্ষ্যাপায়। সে কারণে ভীষণ মন খারাপ হয়ে যায় তার। তাই সে আর আসতে চায় না স্কুলে। 

এরপরই ওই ছাত্রীর পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন শিক্ষিকা। খুদে শিক্ষার্থীর মতো করেই ছোট করে চুল কেটে ফেলেন তিনি।

শ্যানন জানান, তার ছাত্র-ছাত্রীদের তিনি শুধুই শিক্ষার্থী বলে মনে করেন না। বরং তিনি তাদের দেখেন বন্ধু হিসেবে। সুতরাং তাদের কোনো ভুল হলে সঠিক পথ দেখিয়ে দেয়াটা তারই কাজ। ভালোবেসে বুঝিয়ে বললে ছোটরা নিশ্চয়ই বুঝবে, এমনই বিশ্বাস তার।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা