kalerkantho


অন্তর্বাসে লেইস থাকায় ধর্ষণের অভিযোগ খারিজ করে দিলেন বিচারক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ১৭:৫৮



অন্তর্বাসে লেইস থাকায় ধর্ষণের অভিযোগ খারিজ করে দিলেন বিচারক

একটি লেইস লাগানো অন্তর্বাসের কারণে ধর্ষণে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আয়ারল্যান্ডের কর্কের আদালত। ১৭ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনার বিচারের সময় পোশাকের ভিক্তিতে অভিযুক্তকে ছেড়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, সেই মামলার শুনানির শেষের দিকে, আসামী পক্ষের আইনজীবী এলিজাবেথ ও’কনেল উঠে দাঁড়িয়ে অদ্ভুত একটি যুক্তি দেন।

তিনি একটি লেস লাগানো প্যান্টি তুলে ধরে জুরিদের সেই অন্তর্বাসটি দেখতে বলেন। তার যুক্তি ছিল, এই অন্তর্বাসটি ধর্ষিতা পরে ছিলেন।

এলিজাবেথ অন্তর্বাসটি প্রমাণ হিসেবে তুলে ধরে বিচারককে বলেন, আপনাকে দেখতে হবে সে কীরকম পোশাক পরে ছিল।

এর পর প্রায় দেড় ঘণ্টা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে ১২ জনের জুরি প্যানেল অভিযুক্তকে নির্দোষ ঘোষণা করে।

এর পরেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। কীভাবে একটি অন্তর্বাসকে তুলে ধরে আসামীকে ছাড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হলো আদালত থেকে, তা নিয়েই উঠেছে প্রশ্ন।

আয়ারল্যান্ডের রাস্তায় প্রতিবাদীরা বলছেন, তবে কী আদালত এটা প্রমাণ করল যে মেয়েটির পোশাকের জন্যই তাকে ধর্ষিত হতে হয়েছিল। এখানে কী দোষ মেয়েটির?

যদিও ২৭ বছরের অভিযুক্তের দাবি ছিল, তার সঙ্গে কিশোরীর যৌন সম্পর্ক হয়েছিল সম্মতির ভিত্তিতেই।

ডাবলিনের এক বাসিন্দা ওরলা ও’কনোর লিখেছেন, কোনো পোশাকের ভিত্তিতে সম্মতি ছিল কি ছিল না, তা নির্দিষ্ট করে বলা যায় না। আমাদের অন্তর্বাস সম্মতি দেয় না। সম্মতি দিই ‘ব্যক্তি’ আমি।

আয়ারল্যান্ডের সংসদেও আইন প্রণেতারা এ বিষয়টি নিয়ে সরব হয়েছেন। এক সাংসদ রুথ কপিনঙ্গার পার্লামেন্টের মধ্যেই একটি অন্তর্বাস তুলে ধরে সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করে জানান, আক্রান্তদের চরিত্র হনন করা হচ্ছে এই বিচারের মাধ্যমে।



মন্তব্য