kalerkantho

বুধবার । ২৪ জুলাই ২০১৯। ৯ শ্রাবণ ১৪২৬। ২০ জিলকদ ১৪৪০

আর্থিক কেলেঙ্কারিতে আত্মহত্যা করলেন বিশ্বসেরা শেফ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৪:১২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আর্থিক কেলেঙ্কারিতে আত্মহত্যা করলেন বিশ্বসেরা শেফ

সুইজারল্যান্ডের একজন বিশ্বসেরা শেফ বেনইট ভায়োলিয়ার। তার তিনটি রেস্টুরেন্ট ছিল। সম্প্রতি তার বাড়িতে তার লাশ পাওয়া যায়। পুলিশ জানিয়েছে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তার আত্মহত্যার কারণ হিসেবে উঠে এসেছে আর্থিক কেলেঙ্কারি। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে টেলিগ্রাফ।

একসময় ‘বিশ্বের সেরা শেফ’ খেতাব অর্জন করেন বেনইট ভায়োলিয়ার। ৪৪ বছর বয়সে মৃত্যুবরণকারী এ শেফ রেস্টুরেন্ট দ্য ল’হোটেল দ্য ভাইল-এর মালিক। ওয়াইন বিষয়ে এক কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়ে মৃত্যুবরণ করতে হয় সুইজারল্যান্ডের এ শেফকে। তবে সূত্র জানিয়েছে, তিনি এ কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত ছিলেন না। অবশ্য এ কেলেঙ্কারিতে তার রেস্টুরেন্টগুলোর আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি হয়। এতে তিনিও আর্থিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন।

সুইজারল্যান্ডের লউসানের নিকটবর্তী এলাকায় তার রেস্টুরেন্টগুলো ছিল। তার প্রাইভেট ফাইন্যান্সিয়াল পার্টনার ছিল সুইস ওয়াইন বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান সায়ন। ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠানটি মূল্যবান ও বিরল ওয়াইনের ব্যবসা শুরু করে। ওয়াইনের ব্যবসায় লাভের অর্থে প্রতিষ্ঠানটি উন্নতিও লাভ করে। এরপর অসংখ্য ক্রেতার কাছ থেকে অর্ডার গ্রহণ করে প্রতিষ্ঠানটি। পরবর্তীতে সে অর্ডার অনুযায়ী ওয়াইন সরবরাহ করতে ব্যর্থ হয় প্রতিষ্ঠানটি।

জানা যায়, মূল্যবান এ ওয়াইনগুলোর দাম ছিল ১৪ হাজার থেকে সাড়ে ২৭ হাজার পাউন্ড পর্যন্ত। এগুলো কেনার জন্য ক্রেতারা অর্ডার দিতেই থাকে। আর এ অর্ডারের অর্থ নেওয়ার পরেও ওয়াইনগুলো সরবরাহ করতে পারেনি প্রতিষ্ঠানটি। ফলে একটি বোতল কখনও কখনও চারজনেরও বেশি ক্রেতার কাছে বিক্রি করা হয়।

ওয়াইন সরবরাহ করতে না পারায় প্রতিষ্ঠানটির ক্রেতাদের কাছ থেকে নেওয়া অর্থ ফেরত দেওয়ার তাগিদ আসে। এ ছাড়া তাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠানও দেউলিয়া হয়ে যায়। ফলে গভীর আর্থিক সংকটে পড়ে যায় বিশ্বসেরা শেফের এ প্রতিষ্ঠানটি। আর্থিক এ চাপের মুখে পড়ে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন বিশ্বসেরা শেফ বেনইট ভায়োলিয়ার। আর মানসিক বিপর্যয়ের মুখে তিনি আত্মহত্যা করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা