kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

ভ্লাদিমির পুতিন কি অমর? দুটো ছবিতে তোলপাড়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১১:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভ্লাদিমির পুতিন কি অমর? দুটো ছবিতে তোলপাড়

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন কি অমর? সহজ উত্তর, অবশ্যই না। কিন্তু এমন কিছু ছবি ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়েছে যা দেখলে মনে হবে যে, শত বছর আগে থেকেই পুতিন যেন এক যোদ্ধা! আর এখন পর্যন্ত তিনি প্রায় একই আছেন! টেলিগ্রাফের এক প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়েছে অমর পুতিনের কথা।

সম্প্রতি এক রাশিয়ান সেনার ছবি ইন্টারনেটে ছাড়া হয়েছে। এটি তোলা হয়েছিল ১৯২০ সালে। ওই সৈন্যের ছবি হুবহু পুতিনের মতো। এ সন্দেহকে আরো উসকে দিল ১৯৪১ সালের আরেক সৈন্যের ছবি। প্রথম ছবি ২০ বছর পর তোলা আরেকটি ছবিতেও যেন স্পষ্ট পুতিন। ২০১৫ সালের ছবিতে আজকের দৌর্দণ্ড প্রতাপশালী ভ্লাদিমির পুতিন।

তাত্ত্বিকরা মনে করেন, এগুলো যদি পুতিনের ছবি হয়, তবে ধরেই নিতে হবে পুতিন দীর্ঘজীবন পার করছেন। কাজেই রোগ-জ্বরা তাকে কাবু করতে পারে নাই। তার স্বাস্থ্য অন্যদের মতো নয়।

যদি সত্যিকার অর্থেই এগুলো পুতিনের ছবি হয়ে থাকে, তবে তার সুস্বাস্থ্যের কারণগুলো যৌক্তিক। তিনি প্রচুর ঘোড়দৌড় করেন। ব্যায়াম করেন, সাঁতার কাটেন। এ ছাড়া নানা ধরনের খেলাধুলাতেও পারদর্শী তিনি। কাজেই এসব ছবি দেখে তিনি অনেকের চোখেই অমর বলে পরিগণিত হচ্ছেন।

১৯২০ এবং ১৯৪১ সালের ছবি দুটো দেখার পর অনেকেরই স্থির বিশ্বাস, ভ্লাদিমির পুতিনের বয়স শতবর্ষ পেরিয়েছে এবং তিনি এখনো অটুট স্বাস্থ্যের অধিকারী। আবার অনেকে তাকে মিথিক্যাল চরিত্র বলে বিশ্বাস করতে শুরু করেছেন। এমন অনেক প্রাণ রহস্যময় এই দুনিয়ায় বেঁচে আছে। তাই এদের চোখে পুতিন অমর।

তবে এটাই প্রথম নয় যে প্রেসিডেন্টকে অমর বলে বিশ্বাস করা হচ্ছে। এ বছরের প্রথম দিকে বাজফিড এক প্রতিবেদনে জানায়, বিখ্যাত মোনালিসার মুখায়ব আঁকার ক্ষেত্রে পুতিনের চেহারাটাই হয়তো মডেল ছিল। ওপরে ছবিটাই তার প্রমাণ।   

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা