kalerkantho

সোমবার । ২৪ জুন ২০১৯। ১০ আষাঢ় ১৪২৬। ২০ শাওয়াল ১৪৪০

পুতিনের হাঁটার ভঙ্গিতে কেজিবির প্রশিক্ষণ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৮:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পুতিনের হাঁটার ভঙ্গিতে কেজিবির প্রশিক্ষণ

হয়তোবা একেই বলে ‘পাওয়ার ওয়াক।’ কারণ রাশিয়ার নেতারা প্রায় সবাই একই ভঙ্গিতে হাঁটেন। আর এ হাঁটার ভঙ্গিতে লুকিয়ে আছে শক্তি প্রদর্শনের নমুনা। সম্প্রতি গবেষকরা হাঁটার এ ভঙ্গিটি নিয়ে গবেষণা করে কিছু তথ্য জানিয়েছেন। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে টেলিগ্রাফ। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট হাঁটেন বিশেষ একটি ভঙ্গিতে। এ সময় তার ডান হাতটি শরীরের কাছেই থাকে। অন্য হাতটি তিনি মুক্তভাবে দোলান। রাশিয়ার বড় বড় নেতারাও এ ভঙ্গিতেই হাঁটেন বা হেঁটেছেন। কিন্তু কেন? এ প্রশ্নটিই ঘুরে ফিরে আসছিল বহু মানুষের মনে। এ প্রশ্নের উত্তরে গবেষকরা কয়েকটি পয়েন্ট নির্ণয় করেছেন। গবেষকরা জানিয়েছেন, রাশিয়ান গোয়েন্দা সংস্থা কেজিবি সম্ভবত এ হাঁটার ভঙ্গিটি প্রশিক্ষণ দিয়েছে। এতে ডান হাতটি পকেটের কাছাকাছি থাকে। সেখানে থাকা অস্ত্র যেন আত্মরক্ষার প্রয়োজনে সহজেই ব্যবহার করা যায় সেজন্যই ডান হাতটি দূরে নিতে চান না তিনি। রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ছাড়াও একই হাঁটার ভঙ্গিতে দেখা গেছে রাশিয়ান প্রধানমন্ত্রী ডিমিট্রি মেদভেদেভ, দুই সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী অ্যানাতোলি সার্দিউকোভ ও সার্জেই ইভানব, উচ্চপর্যায়ের সামরিক কমান্ডার অ্যানাতোলি সিডরোভকে। তবে এ বিষয়ে নেদারল্যান্ডসের রেডবাউন্ড ইউনিভার্সিটি মেডিক্যাল সেন্টারের গবেষক প্রফেসর বাসতিয়ান ব্লোয়েম বলেন, এটি পার্কিসন রোগের প্রাথমিক লক্ষণও হতে পারে। তবে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট হঠাৎ করে নয় বরং বহুদিন ধরেই এভাবে হাঁটছেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এক্ষেত্রে তার স্বাস্থ্যগত নানা বিষয়, জুডো শিক্ষা, সাঁতার কাটা ইত্যাদি বিষয় বিবেচনা করে তার কোনো রোগের সম্ভাবনা নেই বলেই মনে করছেন অনেক বিশেষজ্ঞ। এক্ষেত্রে তার সামরিক প্রশিক্ষণেই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে বলে মনে করছেন অধিকাংশ ব্যক্তি। গবেষকরা বলছেন, ‘আপনি যখন চলাচল করবেন, তখন আপনার অস্ত্রটি হাতের কাছে রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাশিয়ান উচ্চপর্যায়ের সামরিক কর্মকর্তা ও কেজিবি এজেন্টদের মাঝে এ ধরনের হাঁটার ভঙ্গি স্বাভাবিক বিষয়। তারা অনেকেই এভাবে হাঁটতে অভ্যস্ত। আর রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট এভাবে হাঁটতেই স্বাচ্ছন্দবোধ করেন।
 

মন্তব্য