kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৫ কার্তিক ১৪২৮। ২১ অক্টোবর ২০২১। ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

করোনাকালে সঙ্গীর কতটা কাছাকাছি আসা নিরাপদ?

অনলাইন ডেস্ক   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১২:১৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



করোনাকালে সঙ্গীর কতটা কাছাকাছি আসা নিরাপদ?

সময় বদলাচ্ছে আর মানুষের দৃষ্টিভঙ্গিও ধীরে ধীরে বদলাচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ার এই যুগে অনলাইন ডেটিং অ্যাপের ব্যবহার অনেক বেড়েছে। তবে যৌনতা নিয়ে এখনো অনেক মানুষ খোলাখুলি আলোচনা করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে না। অনেকে গুগল থেকে কয়েকটি ব্লগ বা আর্টিকেল পড়ে সমস্যা সমাধান করতে চান। কিন্তু এতে করে সমস্যা উল্টো বাড়ে।

সম্প্রতি করোনা পরিস্থিতিতে নিরাপদ যৌন সম্পর্ক নিয়ে লিখেছেন সেক্সোলজিস্ট প্রফেসর ডা. সারাংশ জৈন। করোনাকালে সঙ্গীর কাছে আসা কতটা নিরাপদ আর এজন্য কী করণীয় তা তিনি তুলে ধরেছেন। 

বর্তমান অফিস আদালত, স্কুল-কলেজ সব খুলেছে। মানুষ আগের মত সঙ্গীকে নিয়ে ঘুরতে যাচ্ছে। অনেকে আবার শারীরিক সম্পর্কও স্থাপন করছেন। কিন্তু সতর্কতা অবলম্বন করছে কয়জন? শারীরিকভাবে কাছাকাছি আসলে করোনা ছড়ানোর ঝুঁকি থেকে যায়।  এই পরিস্থিতিতে কী করবেন চলুন জেনে নেওয়া যাক।

যেহেতু সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং এই মুহূর্তে খুবই জরুরি, সেভাবেই সেক্সুয়াল জীবনেও সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং এখন নিউ নর্ম্যাল। এই অবস্থায় নতুন সঙ্গীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক তৈরি করতে হলে সব থেকে নিরাপদ উপায় হল, দু'জনেরই করোনা টেস্ট করে রাখা। আর যদি কারও কোনও রকম উপসর্গ না থাকে এবং দু'জনই একেবারে ঘরেই থাকেন, সে ক্ষেত্রে যৌন সম্পর্কের ক্ষেত্রে কোনও ঝুঁকি নেই।

শারীরিক সম্পর্ক থেকে কি করোনা ছড়াবে?

কোভিড ১৯ একেবারেই সেক্স থেকে ছড়ায় না অর্থাৎ এটি সেক্সুয়ালি ট্রান্সমিটেড ডিজিজ নয়। বীর্য অথবা ভ্যাজাইনাল ফ্লুয়িডে এই ভাইরাসের উপস্থিতি মেলেনি। তবে সাবধানতা অবলম্বন করতে গেলে প্রথমে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। ধরা যাক, ভ্যাকসিনের দু'টো ডোজই নেওয়া হয়েছে, কিন্তু সঙ্গী নিয়েছেন কি না জানা নেই, সে ক্ষেত্রে দূরত্ব বজায় রাখাই ভালো। আসলে, আক্রান্ত কারও যদি উপসর্গ না থাকে, সে ক্ষেত্রে তা স্পর্শ,মিউকাস বা স্যালাইভা থেকে কভিড ছড়াতে পারে।

কী কী সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে?

ধরা যাক, দু'জনেই কোথাও থেকে ঘুরে এসেছেন। অথচ টেস্ট এখনও করানো হয়নি। তাই ইন্টারকোর্স থেকে দূরে থাকতে হবে। তার বদলে রোম্যান্টিক ইন্টারকোর্স করা যেতে পারে।

এই পরিস্থিতিতে সঙ্গী যদি কারও সঙ্গেই থাকেন, তা হলে সে ক্ষেত্রে সেটা নিরাপদ। যদি কারও কোনও উপসর্গ দেখা দেয়, তা হলে ১৪ দিন তাকে আইসোলেশনে থাকতে হবে। কোনও রকম শারীরিক সম্পর্ক থেকে বিরত থাকতে হবে। যদি অনেক সঙ্গী থাকে, আর তাদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কও থাকে, সে ক্ষেত্রে দেখা-সাক্ষাৎ না করে অনলাইন প্ল্যাটফর্মেই ঘনিষ্ঠতা বাড়ানো নিরাপদ।

নিরাপত্তা অবলম্বন করতে রাবারের গ্লাভস, কন্ডোম, ডেন্টাল ড্যাম ব্যবহার করতে হবে। যাতে স্যালাইভা অথবা অন্যান্য যে কোনও রকম নিঃসরণ থেকে দূরে থাকা যায়। আর চুমু খাওয়া এড়িয়ে চলাই ভালো। তার জন্য অবশ্য মুখে মাস্ক পরা যেতে পারে।

মনের কাছাকাছি:

করোনা পরিস্থিতিতে সঙ্গীর মনের কাছাকাছি থাকাটাই সবচেয়ে ভালো উপায়। আসলে এই সময় ডেটে যাওয়া উচিত নয়। আর সঙ্গীও আশা করা যায় এই পরিস্থিতি বুঝতে পারবেন এবং অপেক্ষা করবেন। মনে রাখতে হবে, প্রথমে প্রয়োজন নিজের জীবন এবং নিরাপত্তা। তার পর বাকি সব কিছু।



সাতদিনের সেরা