kalerkantho

শুক্রবার । ২ আশ্বিন ১৪২৮। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ৯ সফর ১৪৪৩

বর্ষায় স্যাঁতসেঁতে ঘরবাড়ি থেকে মুক্তির উপায়

অনলাইন ডেস্ক   

৩০ জুলাই, ২০২১ ১১:১১ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বর্ষায় স্যাঁতসেঁতে ঘরবাড়ি থেকে মুক্তির উপায়

রিমঝিম বৃষ্টি, ঠাণ্ডা আবহাওয়া অনেকেরই পছন্দের। কিন্তু এই বৃষ্টিই আবার অনেক সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায়।  বৃষ্টি বাড়তে শুরু করলে বাড়ির মধ্যে দেখা যায় ভেজা, স্যাঁতসেঁতে ভাব। বৃষ্টির পানি ছাদ, দরজা, জানালা থেকে বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে। এর ফলে অনেক সময় দেয়াল বা সিলিং ভিজে, স্যাঁতসেঁতে হয়ে যায়। কয়েকটি উপায় মেনে চললে এ সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

ওয়াটার প্রুফিং বাড়ান

দেয়াল, বারান্দা ও ছাদের মধ্যে ফাটল দেখা দিলে তা চিহ্নিত করুন। স্থান ও ফাটলের আকার অনুযায়ী পলিইউরেথেন, সিমেন্ট, থার্মোপ্লাস্টিক বা পিভিসি ওয়াটার প্রুফিং করিয়ে এই ফাটলের মেরামত করুন। দেয়াল পানি টানতে শুরু করলে দুই কোটের ওয়াটার প্রুফিং ও সিলেন্ট স্প্রে করুন। এর ফলে বাড়ির ভেতরে বৃষ্টির পানির ফোঁটা আসবে না।

পাইপ ও নর্দমা পরিষ্কার করুন
বাড়ির ভেতরের ও বাইরের বন্ধ নদর্মায়ও জীবাণুর বংশবৃদ্ধি হয়, সেই সঙ্গে আবার বর্ষাকালে নর্দমা ভরে যায়। এ কারণে ছাদ, বাথরুম ও সিঙ্কেও পানি উপচে পড়ে। পরে তীব্র দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। পাইপে যাতে পানি জমতে না পারে তার জন্য নির্দিষ্ট সময় অন্তর অন্তর এটি পরিষ্কার করা উচিত। এক কাপ বেকিং সোডা, এক কাপ টেবিল সল্ট ও এক কাপ সাদা ভিনিগার মিশিয়ে বাড়ির পাইপে ঢেলে দিন। ১৫ মিনিটের জন্য এভাবেই ছেড়ে দিন। তারপর গরম পানি ঢেলে দিলেই পাইপ ভালোভাবে পরিষ্কার হয়ে যাবে।

স্যাঁতসেঁতে স্থানটিকে জীবাণুমুক্ত করুন

স্যাঁতসেঁতে ও শ্যাওলা থাকলে মাছি ও কীট বংশবৃদ্ধি করতে শুরু করে। রান্নাঘরের প্ল্যাটফর্ম, টেবিল, আলমারি, দেয়াল, মেঝে ইত্যাদি স্থানকে ঘন ঘন জীবাণুমুক্ত করা উচিত। বাড়িতেই সহজে জীবাণুনাশক স্প্রে বানিয়ে নিতে পারেন। ২৫ শতাংশ ভিনিগারে ৭৫ শতাংশ পানি মিশিয়ে একটি ঘোল তৈরি করে নিন। এরপর সুগন্ধের জন্য এসেনশিয়াল অয়েল মেশান। এই অর্গ্যানিক ডিসইনফেকট্যান্ট স্প্রে দিয়ে নিজের বাড়ির নানা অংশকে জীবাণুমুক্ত করুন।

দেয়াল আর্দ্র হতে দেবেন না

দেয়াল যাতে অতিরিক্ত আর্দ্র না-হয়ে পড়ে সেদিকে লক্ষ্য রাখুন। আবার দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি লাভের জন্য কিচেন ক্যাবিনেট বা আলমারির কোণে বাথ সল্ট রাখুন। বাড়িতেও এটি তৈরি করতে পারেন। সি সল্টের মধ্যে ইপসম সল্ট ও বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন। সুগন্ধের জন্য এতে কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল মেশাতে পারেন।

কাঁচা জিনিস খারাপ হতে দেবেন না

কাঁচা খাদ্যসামগ্রী বৃষ্টির সময় তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায়। এর জন্য যেখানে খাদ্যসামগ্রী রাখেন, তা যেন উন্মুক্ত হয় এবং ভালোভাবে বাতাস চলাচল করে। এই খাদ্যবস্তুগুলোকে প্লাস্টিকে না-রেখে এয়ারটাইট কন্টেইনার বা কাচের জারে রাখুন। কীট, পতঙ্গ দূর করার জন্য বাড়িতে তৈরি জীবাণুনাশক ব্যবহার করুন। আর্দ্রতা ও জীবাণু থেকে মুক্তির জন্য আলমারি, কিচেন ক্যাবিনেটে কর্পূর, ন্যাপথলিন বল, সিলিকা জেলের পাউচ রাখা যায়। রান্নাঘরে লবঙ্গ ও নিমপাতা রাখলেও জীবাণু বাসা বাঁধতে পারে না।

ইলেকট্রিকের ব্যবস্থাকে নিরাপদ করুন

বাড়ির তার, লাইট, ডোরবেল ও অ্যালার্মকে ভালোভাবে সিল করে দিন, যাতে বাড়িতে শক-ফ্রি কানেকশন থাকে। ইলেকট্রিশিয়ানকে ডেকে বাড়ির সব ইলেকট্রিক কানেকশন পরীক্ষা করিয়ে দেখে নিন। জেনারেটর রুম, ইনভারটার ইউনিট, এমসিবি ইত্যাদি পানি টানছে কি না, তা-ও যাচাই করিয়ে নিন।

কাঠের মেঝে বা সামগ্রীকে সুরক্ষিত রাখুন

বর্ষাকালে কাঠ, বাঁশ, বেত, কাঠের ফার্নিচার, দেয়ালের প্যানেল ও কাঠের জিনিসের ভালোভাবে যত্ন নিতে হবে। শুকনো কাপড় দিয়ে এগুলো পরিষ্কার করুন। আর্দ্রতার কারণে কাঠ ফুলে যেতে পারে। কাঠের আসবাব বা সামগ্রীর ওপর বার্নিশ পেন্ট করাতে পারেন।

ভারী কার্পেট ও পর্দা বাতিল করুন

বর্ষাকালে ভারী পাপোশ, কার্পেট ও পর্দা সহজে খারাপ হয়ে যেতে পারে। তাই বর্ষা এলেই এগুলো প্লাস্টিকে মুড়িয়ে রেখে দিন, যাতে ফাংগাস না ধরে। 

বৃষ্টির পানি ভেতরে আসতে দেবেন না
দরজা ও জানালার মাধ্যমে ঘরে পানি আসতে পারে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে হলে নানা রঙের ছাতা বা শেড লাগাতে পারেন। এটি দেখতে যেমন সুন্দর লাগবে, তেমনই বৃষ্টি থেকে রক্ষা করবে। এ ছাড়া এসি ওপেনিং, স্কাইলাইট ও ভেন্টসে ফাটল থাকলে তা যাচাই করে নিন।



সাতদিনের সেরা