kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ শ্রাবণ ১৪২৮। ৫ আগস্ট ২০২১। ২৫ জিলহজ ১৪৪২

ডিজিটাল কেনাকাটায় কেন সতর্কতা অবলম্বন করবেন?

অনলাইন ডেস্ক   

১২ জুলাই, ২০২১ ১০:১০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ডিজিটাল কেনাকাটায় কেন সতর্কতা অবলম্বন করবেন?

নির্ভরযোগ্য ওয়েবসাইট, সঠিক ট্রানজিকশন নাম্বারসহ অনলাইন কেনাকাটায় অর্থনৈতিক লেনদেন নিয়ে অনেকেরই অভিযোগ থাকে। এসব বিষয়ে করণীয় কী? পরামর্শ দিয়েছেন ব্রেইন স্টেশন ২৩-এর বিজনেস অ্যানালিসিস্ট নাজমুল হাসান। লিখেছেন এ এস এম সাদ।

ফাতিমাতুজ জোহরা ডানা একজন বেসরকারি চাকরিজীবী। তিনি অনলাইনে একটি ফেসবুক পেজ থেকে শাড়ি অর্ডার করেছিলেন। শাড়িটির দাম ১২০০ টাকা। অনলাইন পেজ থেকে অগ্রিম ২০০ টাকা চাওয়া হয় তার কাছে। তিনি বিকাশে ২০০ টাকা পাঠিয়ে দেন। কয়েক দিন পরই অর্ডারটি হাতে এসে পৌঁছায়। তিনি দেখতে পান ছবির শাড়ি ও ডেলিভারীকৃত শাড়ির মধ্যে অনেক পার্থক্য। ডানা বলেন, ‘আমাকে মূল শাড়ির বদলে শাড়িটির কপি [রেপ্লিকা] দেওয়া হয়েছে।’ পরে সেই অনলাইন পেজে যোগাযোগ করলে তাকে কাপড়টি ফেরত পাঠাতে বলা হয়। নিজের থেকে আরো ২০০ টাকা খরচ করে শাড়িটি আবার ফেরত পাঠান। কয়েক মাস পর তাকে অন্য আরেকটি শাড়ি পাঠানো হয়। ডানার মতে, তিনি প্রতারিত হয়েছেন। এসব কারণে অনলাইনে কেনাকাটার ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করা জরুরি।

নির্ভরযোগ্য সোর্স

কোনো পণ্য কেনার আগে সোর্সটি কতটুকু নির্ভরযোগ্য তা যাচাই করুন। লাইক ও কমেন্ট বক্সগুলোর মন্তব্যে একবার চোখ বুলিয়ে নিন। যারা অনলাইন থেকে কেনাকাটা করেন, তাদের সঙ্গে কথা বলে পেজটির বিশ্বাসযোগ্যতা যাচাই করে নিন।

পিন দেওয়ার ক্ষেত্রে সতর্কতা

ডিজিটাল পেমেন্ট করার সময় অনেককে ট্রানজেকশন পিন ব্যবহার করতে হয়। সেই সময় আপনার পাশের ব্যক্তিটি সেই পিন নাম্বার নজরে নিচ্ছেন কি না সেটি খেয়াল রাখুন। কারণ কেউ আপনার পিন নাম্বার পেয়ে যায় তাহলে আপনার অ্যাকাউন্টের এক্সেস খুব দ্রুত পেয়ে যাবে। 

ওয়েবসাইট থেকে না

যেকোনো ওয়েবসাইটে ট্রানজেকশন করা থেকে বিরত থাকুন; এমনকি অনলাইন ব্যাংকিং করার ক্ষেত্রেও এটি নজরে রাখা জরুরি। ওয়েবসাইট থেকে কোনো পণ্য কেনার সময় পেমেন্ট অ্যাগ্রিগেটরের মাধ্যমে ট্রানজেকশন করা হয়। এই ক্ষেত্রে অনেক স্বনামধন্য ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম বিশ্বাসযোগ্য হলেও সতর্কতা অবলম্বন করুন, বিশেষ করে অনেক ওয়েবসাইট আছে, যেগুলো মানুষের কাছে তেমন পরিচিত নয়; কিন্তু চটকদার অফারে ভরপুর। সেই সব ক্ষেত্রে অবশ্যই ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট নাম্বার ব্যবহার করা বেশি নিরাপদ। এই সব ক্ষেত্রে সরাসরি থার্ড পার্টি কিংবা ই-কমার্স ওয়েবসাইট থেকে পেমেন্ট না করাই ভালো। কারণ ডিজিটাল লেনদেনে যত নিরাপত্তা ও সতর্কতা অবলম্বন করে ট্রানজেকশন করা যায় তত তা নিরাপদ।

ইনক্রিপটেড কি না যাচাই করুন

অনেক সময় ওয়েবসাইট থেকে ট্রানজেকশন করতে হতে পারে। সেই ক্ষেত্রে অবশ্যই ওয়েবসাইটের লিংকে গিয়ে ইনক্রিপটেড  যাচাই করুন। ইনক্রিপটেড থাকলে পেমেন্ট করা নিরাপদ। 

পাসওয়ার্ড দেওয়ায় সতর্কতা

একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন। অনেকেই এমন পাসওয়ার্ড দেন, যেটি সচরাচর দৈনন্দিন জীবনে কথা বলতে গিয়ে ব্যবহার করেন। পাসওয়ার্ড দেওয়ার ক্ষেত্রে এই রকম ভুল করা থেকে বিরত থাকুন; এমনকি কাছের মানুষকেও পাসওয়ার্ড দেওয়ার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকা উচিত।

স্ক্রিনশট রাখুন

বিকাশ, ব্যাংকিং কিংবা কোথাও ব্যাংকিং পেমেন্ট করার পর অবশ্যই একটি স্ক্রিনশট নিয়ে রাখুন। কারণ কোনো কারণে ট্রানজেকশন ফেল হলে প্রমাণ হিসেবে স্ক্রিনশট ব্যবহার করতে পারবেন। 

অফারে সাবধানতা অবলম্বন করা 

অনেক ওয়েবসাইট কেনাকাটায় চটকদার অফার দেয়। এতে অনেকেই হম্বিতম্বি করে সেই অফার লুফে নিতে চান। তার আগে ভালো করে যাচাই-বাছাই করুন অফারটি আসল, নাকি নকল। নতুনা অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার একটা আশঙ্কাও থেকে যায়।  

ভুয়া কল থেকে সাবধানতা

ভুয়া কল থেকে সাবধানতা অবলম্বন করুন। অনেক সময় কাস্টমার সার্ভিসের নাম করে গ্রাহকের কাছে পিন নাম্বার চাওয়া হয়, তখন কোনোভাবেই পিন কিংবা পাসওয়ার্ড দেওয়া যাবে না।



সাতদিনের সেরা