kalerkantho

সোমবার । ৭ আষাঢ় ১৪২৮। ২১ জুন ২০২১। ৯ জিলকদ ১৪৪২

রমজানে সুস্থ থাকতে কী খাবেন?

অনলাইন ডেস্ক   

৭ মে, ২০২১ ১০:৫৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রমজানে সুস্থ থাকতে কী খাবেন?

রমজানে সুস্থ থাকাটা অত্যন্ত জরুরি। তাই এ সময় নিজের শরীরের খেয়াল রাখাটা অনেক জরুরী। অনেকেই সারাদিন না খেয়ে থাকার ফলে ইফতারের পর অনেক বেশি খেয়ে ফেলেন।  যা হিতে বিপরীত হয়ে দাঁড়ায়। এজন্য রোজার সময়টা অনেক বুঝে শুনে তারপর খাবার খেতে হবে।

সারা দিন রোজা রেখে পাকস্থলী খুব ক্ষুধার্ত ও দুর্বল থাকে। তারপর যদি ইফতারে তৈলাক্ত ভারি খাবার খাওয়া হয় তাহলে পেটের সমস্যা, মাথাব্যথা, দুর্বলতা, অবসাদ, অ্যাসিডিটি, হজমের সমস্যা ইত্যাদি দেখা দেয়। আবার এসব খাবারে ওজনও অনেক বেড়ে যায় এই একমাসে। তাই রমজানে বুঝে শুনে খাবার খেতে হবে। জেনে নিন রমজানে সুস্থ থাকবেন যেভাবে:

বেশি করে পানি খান:

সারাদিন রোজা রাখার কারণে পানাহার থেকে বিরত থাকা হয়। এজন্য ইফতার থেকে সাহরির আগ পর্যন্ত ঘন ঘন পানি খাওয়া খুবই জরুরি। তবে কখনোই একসঙ্গে অনেক পানি পান করবেন না।

ফলের রস ও দুধ:

শরীর ঠাণ্ডা রাখতে তাজা ফলের রস বা দুধ খেতে পারেন। তরমুজ বা মাল্টার মতো রসালো ফল খেতে হবে। বেশি করে শাক-সবজি খেতে হবে, যেমন- শসা, লাউ, পালং শাক, পেঁপে ইত্যাদি।

চা-কফি খাবেন না:

রমজানে কফি, চা এবং কোমল পানীয় পান করলে শরীর ডিহাইড্রেট হয়ে যায়। এ কারণে ইফতার বা সাহরিতে চা, কফি বা সফট ড্রিঙ্কস ইত্যাদি পানীয় না খাওয়াই ভাল।

অস্বাস্থ্যকর খাবার পরিহার করুন:

রোজায় সারাদিন না খেয়ে থাকার ফলে মিষ্টি এবং ফ্যাটজাতীয় খাবারের প্রতি আমাদের আসক্তি বাড়ে। তবে সুস্থ থাকতে ইফতারে ভাজা-পোড়া বা ভারি খাবার এড়িয়ে চলুন। বাদাম খাওয়ার চেষ্টা করুন। তেল-মশলা ছাড়া ছোলা খেতে পারেন।

জাঙ্ক ফুড নয়: 

ভাজা-পোড়া খাবারের পরিবর্তে গ্রিলড, বেকড বা স্টিমযুক্ত খাবার বেছে নিন। ইফতারের সময় একসঙ্গে বেশি খাবার খাবেন না। প্রয়োজনে পরিমাণে অল্প অল্প করে কয়েকবার খান। মিষ্টিজাতীয় খাবার এড়িয়ে চলুন।

বিশ্রাম এবং শরীরচর্চা:

রমজানে শরীর ফিট রাখা অনেক জরুরি। একদিন রোজা রাখার পর আবার পরের দিনের জন্য শরীরকে প্রস্তুত করতে প্রয়োজন পর্যাপ্ত বিশ্রাম ও ওয়ার্ক আউট করা। এজন্য শরীরকে পুষ্টি দিতে হবে। যার মাধ্যমে শরীর আপনাকে শক্তি দেবে। তাই ফল, শাক-সবজি, মাংস, মাছ এবং ডিম, দুধ, দই বা পনির এবং স্বাস্থ্যকর চর্বিজাতীয় খাবার বেশি করে খেতে হবে। খাবার খাওয়ার সময়  সময় নিয়ে খাবেন। তাহলে খাবার দ্রুত হজম হবে।

 



সাতদিনের সেরা