kalerkantho

শনিবার । ২৫ বৈশাখ ১৪২৮। ৮ মে ২০২১। ২৫ রমজান ১৪৪২

বাড়িতে করোনা রোগী থাকলে করণীয়

অনলাইন ডেস্ক   

৩০ এপ্রিল, ২০২১ ১০:০৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাড়িতে করোনা রোগী থাকলে করণীয়

অবস্থা সঙ্কটজনক না হলে বাড়িতেই করোনা রোগীর যত্ন নেওয়া যায় বলছেন চিকিৎসকেরা। চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে নিজেদেরই দেখভাল করতে হবে রোগীর। তবে তা অবশ্যই সাবধান ও সতর্কতার সাথে। পরিবারের অন্য কেউ যাতে আবার আক্রান্ত না হয়ে পড়ে সেদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। করোনা রোগীর চিকিৎসায় যেসব বিষয় মেনে চলা উচিত চলুন জেনে নেওয়া যাক।

রোগীর সান্নিধ্যে গেলে অন্তত তিনটি মাস্ক পরার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা। রোগীর ঘরে খুব প্রয়োজন ছাড়া  ঢোকাই যাবে না। রোগীকে ছুঁয়ে দেখতে হলে হাতে গ্লাভস থাকা জরুরি। তবে কোনও ভাবেই করোনা আক্রান্তের মুখে বা নাকে হাত দেওয়া চলবে না।

চিকিৎসকেরা বলছেন, বাড়িতে একজন করোনায় আক্রান্ত হলেই বাকিদেরও বিপদের আশঙ্কা থাকে। ফলে রোগীর ব্যবহার করা কোনও জিনিসে হাত না দেওয়াই ভাল। করোনা আক্রান্তের পোশাক, বিছানার চাদর, বাসন পরিষ্কার করতে হলে গ্লাভস পরে নিতে হবে। সে সময়ে মুখেও মাস্ক থাকাও জরুরি। আশপাশে রোগী নেই বলে অসাবধান হওয়া যাবে না। পরবর্তীতে সেই গ্লাভস ও মাস্ক একটি জীবাণুমুক্ত ব্যাগে ভরে রাখতে হবে।

রোগীকে খাওয়াদাওয়া সারতে হবে নিজের ঘরে বসেই।  তার ব্যবহার করা সব বাসন রাখতে হবে একেবারে আলাদা। বাড়ির আর কেউ সে সবে হাত না দেওয়া ভাল। প্রয়োজন না হলে রোগীর ঘরে না যাওয়াই ভালো। একসঙ্গে বসে গান শোনা, টিভি দেখার মতো কাজ একেবারেই করা যাবে না। যতটা সম্ভব দূরত্ব বজায় রাখতে হবে বাড়ির মধ্যেও।

রোগীর ঘর থেকে বেরিয়ে এসে হাতে সাবান দিয়ে ভাল করে ধুতে হবে। ব্যবহৃত মাস্কের সামনের অংশে কখনও হাত দেওয়া যাবে না। কানের পাশের ইলাস্টিকে হাত দিয়ে মুখ থেকে মাস্ক সরাতে হবে। তার পরে আবার হাত ধুতে হবে বা স্যানিটাইজ করতে হবে।

করোনা রোগীর চিকিৎসায় নিজে সুস্থ থাকলেই বাকিদের দেখভাল করা সম্ভব।

সূত্র: আনন্দবাজার



সাতদিনের সেরা