kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ বৈশাখ ১৪২৮। ১০ মে ২০২১। ২৭ রমজান ১৪৪২

কেমন হবে রমজানে জীবনযাপন?

অনলাইন ডেস্ক   

১৬ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কেমন হবে রমজানে জীবনযাপন?

শুরু হয়েছে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে পবিত্র মাস রমজান। এক মাস আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে সিয়াম  পালন করে মুসলিম ধর্মপ্রাণ মানুষ। রমজানে সারা দিন রোজা রাখার পর ইফতার ও সাহরির খাবারটা যেন সঠিক হয়, সে বিষয়ে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। অতিরিক্ত রোদ-গরমে সারা দিন পানাহার থেকে বিরত থাকলে দেখা দিতে পারে অনেক সমস্যা। এ জন্য কিছু নিয়ম অবশ্যই মেনে চলতে হবে।

রমজানে খাবার

সারা দিন রোজা রাখার পর এমন খাবার খাওয়া উচিত, যা ডিহাইড্রেশন রোধ করতে পারে। ইফতারে প্রচুর পরিমাণে পানি, পানিজাতীয় খাবার, টাটকা ফল, খেজুর, অল্প চিনি খাওয়া উচিত। একসঙ্গে বেশি খাবার খাওয়া কখনোই উচিত না। ড্রাই ফ্রুটস, চিঁড়া-দই খাওয়া যেতে পারে। তেলে ভাজা জিনিস খাওয়া বাদ দিতে হবে। একেবারে বাদ দেওয়া না গেলেও আস্তে আস্তে কমাতে হবে। এমনটাই বলছেন পুষ্টিবিদরা।

যে খাবারগুলো তৃষ্ণা নিবারণ করে যেমন তরমুজ, দই, বাটার মিল্ক রাখতে পারেন তালিকায়। এ ছাড়া প্রোটিনের উৎস হিসেবে ডিম, ডাল খাওয়া যেতে পারে। শরীরের জন্য উপকারী ফ্যাট, সামান্য ঘি, অ্যাভোকাডো রাখতে পারেন তালিকায়।

উপকারী টিপস

আপনি রাতের প্রধান খাবার- অর্থাৎ মেইন মিল খাওয়ার আগে একটি প্রার্থনা বিরতি নিন। সম্ভব হলে কিছু সময় ব্যায়াম করার চেষ্টা করুন। হালকা ইফতারের পর রাতের খাবার খাওয়ার আগে নামাজের জন্য সময় রাখুন। রাতের খাবার প্লেটে ৩০ শতাংশ কার্ব, ৩০ শতাংশ ডাল এবং ৩০ শতাংশ উচ্চ ফাইবারযুক্ত শাক রাখুন। খিচুড়িও খেতে পারেন, সঙ্গে রাখতে পারেন মুরগির মাংস।

এ ছাড়া ফল অবশ্যই খেতে হবে। আপনার যদি ডায়াবেটিস থাকে, তাহলে তো আর কথাই নেই। ওজন নিয়ন্ত্রণে আনতে হলেও ফল খান।

যা এড়িয়ে চলবেন

চিনি, মিষ্টি এবং বেশি মিষ্টি বাজারের কেনা ফলের রস এড়িয়ে চলুন, যা আপনার রক্তে চিনির পরিমাণ বাড়িয়ে তুলবে। এতে করে আপনি পরদিন যখন রোজা রাখবেন তখন আপনার বেশি ক্ষুধা লাগবে আর আপনি অনেক ক্লান্তি অনুভব করবেন।

সূত্র : দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।



সাতদিনের সেরা