kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে কী করবেন?

অনলাইন ডেস্ক   

৪ এপ্রিল, ২০২১ ১১:৩৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে কী করবেন?

মানবদেহ শক্তিশালী সাথে এর প্রক্রিয়াগুলোও। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সহায়তায় আমরা এখন শরীরকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারি। আমাদের শরীর প্রতি সেকেন্ডে ২৫ মিলিয়ন নতুন কোষ তৈরি করতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে, যা প্রতিটি ক্ষতিকারক পদার্থকে বাইরে বের করে দিয়ে আমাদের  যকৃত এবং কিডনিকে কার্যকরী রাখে।

হ্যারি জে জনসন একবার বলেছিলেন মানবদেহ এর পরিবেশ দ্বারা সৃষ্ট অসংখ্য বাধা ও আক্রমণ প্রতিহত করার জন্য তৈরি করা হয়েছে। আমাদের দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা  ডিটক্স,ও পুনর্জীবন করার উপর নির্ভর করে। আমাদের প্রতিদিনের খাবার, শ্বাস প্রশ্বাস নেওয়ার ধরণের উপর নির্ভর করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। কিছু বিষয় রয়েছে যেগুলো মেনে চললে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো সম্ভব।

১.আমরা যখন ঘুমাই, আমাদের দেহ ঘুমের মধ্যে ৫ টা ধাপ সম্পন্ন করে যাটিস্যু এবং পেশীগুলি মেরামত করে, ডিটক্স চক্রের মাধ্যমে পরিষ্কার করে, নিউরোনিক পাথ তৈরি করে - সংক্ষেপে শরীরকে আবার কাজের জন্য অন্য দিনের জন্য প্রস্তুত করে তোলে। প্রতিদিন রাত ১১ টার মধ্যে বিছানায় যাওয়ার চেষ্টা করুন আর সাত থেকে আট ঘণ্টা ঘুমান। ঘুম কম হলে মানুষ নানা রোগে ভুগে।

২. গভীর শ্বাস-প্রশ্বাস ব্যায়াম এবং নিয়মিতভাবে করা গেলে ভ্যাগাস নার্ভটি সুস্থ থাকে।ভ্যাজাস নার্ভ মানব দেহের দীর্ঘতম স্নায়ু যা মস্তিষ্ক এবং পাচনতন্ত্রের সাথে সংযোগ স্থাপন করে এবং সংকেত দেওয়ার পথগুলো উন্নত করে। এতে করে  হজম, শোষণ এবং পুষ্টিগুলোর সহজলভ্যতা নিশ্চিত করে যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

৩. আপনার শরীরের জন্য যে খাবারগুলো ভালো হয় সেগুলো খাওয়ার চেষ্টা করুন। যা খেলে আপনার হজম ভালো হয়, শক্তির স্তর ঠিক থাকে, অবসন্নতা না থাকে, ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে এমন খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন।

৪.কিছু খাবার নিরাময়ের ক্ষমতা রাখে, ক্ষারীয় অবস্থার উচ্চতর সম্ভাবনার সুযোগ দেয় এবং ফ্রি র‌্যাডিকেল নিঃসরণ করে যা না হলে শরীরে বিপর্যয় সৃষ্টি করতে পারে। এই জাতীয় খাবারগুলো তালিকায় রাখুন। চলুন জেনে নেওয়া যাক এমন কিছু খাবারের কথা।

হলুদ : হলুদ খাবারের পরিপূরক হতে পারে।

দারুচিনি: দারুচিনি খেতে হবে তবে  ভেজাল দারুচিনি ব্যবহারে সতর্কতা অবলম্বন করুন।

 আদা: এতে আদা রয়েছে যা সংক্রামক লড়াইয়ে সহায়তা করতে পারে।

 লেবু: এটি একটি অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

তুলসী পাতা: তুলসী পাতা পানিতে ভিজালে পানিতে সতেজতা যোগ করে এবং রোগ প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে।

গিলয় বা গুলঞ্চ - একটি শক্তিশালী ভেষজ যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

পুষ্টিগুলির সঠিক ভারসাম্য (জিংক, ভিটমিন ডি, ভিটামিন ই, ভিটামিন এ, সেলেনিয়াম, ফোলেট এবং আয়রন) যা আমাদের শক্তিশালী রেখে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

সূত্র: এনডিটিভি ফুড

 



সাতদিনের সেরা