kalerkantho

বুধবার । ৮ বৈশাখ ১৪২৮। ২১ এপ্রিল ২০২১। ৮ রমজান ১৪৪২

ইন্টারভিউয়ের আগে মানসিক চাপে ভুগছেন? মেনে চলুন এই কয়েকটি নিয়ম

অনলাইন ডেস্ক   

১৯ মার্চ, ২০২১ ১২:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইন্টারভিউয়ের আগে মানসিক চাপে ভুগছেন? মেনে চলুন এই কয়েকটি নিয়ম

চাকরির ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার সময় উদ্বেগে ভোগেন অনেকেই। বিশেষ করে যে সময়টা ইন্টারভিউয়ের সময় ঘরের বাইরে বসে থাকতে হয়, সেই সময়টা সবচেয়ে মানসিক চাপের। কিন্তু কয়েকটি নিয়ম মেনে চললেই  এই মানসিক চাপ অনেকটা কমিয়ে ফেলা যায়।

নিজেকে নাম ধরে ডাকুন :  ‘হার্ভার্ড বিজনেস রিভিউ’ ইন্টারভিউ নিয়ে এক সমীক্ষায় বলছে, সেই সব ব্যক্তি অনেক বেশি আত্মবিশ্বাস ফিরে পান, যারা ইন্টারভিউয়ের আগে মনে মনে নিজের সঙ্গে কথা বলার সময় নিজেকে নিজের নামে ডাকেন।

চুইংগাম : ইন্টারভিউয়ের আগে চুইংগাম চিবোলে মানসিক চাপ কমে। এমনই বলছে মেলবোর্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সমীক্ষা। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, চুইংগাম চিবোনোর সময় সেসব হরমোনের ক্ষরণ কমে, যেগুলো মানসিক চাপ বাড়ায়। তা ছাড়া এতে মন অনেক বেশি সতেচন থাকে। এমনকি অফিসে কাজ করার সময়ও চুইংগাম চিবোলে মানসিক চাপ কমে বলেও বলা হয়েছে এই সমীক্ষার রিপোর্টে। তবে ইন্টারভিউয়ে নির্দিষ্ট কক্ষে প্রবেশের আগে মুখ থেকে চুইংগাম ফেলে দিতে হবে।

উদ্বিগ্ন নয়, উত্তেজিত : ইন্টারভিউয়ের ঘরের বাইরেই হোক বা ভেতরে ঢুকেই হোক আশপাশের মানুষকে যদি বলা যায়, বিষয়টা নিয়ে খুব উত্তেজনা হচ্ছে, তাহলে মানসিক চাপ কমে। মানসিক চাপ বা উদ্বেগের সঙ্গে উত্তেজনার পার্থক্য আছে। এমনই বলছে হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলের গবেষণা।

মিষ্টি কিছু : মিষ্টি কিছু খেলে মানসিক চাপ কমে, এমনটাই বলছেন আমেরিকার লোমা লিন্ডা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। তাদের দাবি, ডার্ক চকোলেট বা অন্য কোনো ধরনের মিষ্টি খাবার মুখে গেলে ‘স্ট্রেস হরমোন’-এর ক্ষরণ কমে। এই হরমোনগুলোই মানসিক চাপ বাড়িয়ে দেয়। ইন্টারভিউয়ের আগে চাপ কাটানোর সহজ রাস্তা এই ধরনের কিছু খাওয়া।

কফি নয়, চা : কফির কারণে হৃদযন্ত্রের গতি বাড়ে। চা খেলে তা হয় না। অ্যাঞ্জেলা আইলার্ড নামে আমেরিকার এক মনোবিদ তার গবেষণায় এমনটাই দেখিয়েছেন। তার দাবি, ইন্টারভিউয়ের ঘরে ঢোকার আগে গরম কিছু খেতে ইচ্ছা হলে চা খাওয়া উচিত। উদ্বেগ কমবে।

হাঁটা : ‘মায়ো ক্লিনিক’ নামে আমেরিকার এক চিকিৎসা পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থার গবেষণা বলছে, হাঁটা উদ্বেগ কমাতে কাজে লাগে। ইন্টারভিউয়ের ঘরের বাইরে চুপ করে পায়চারি করলে এ ক্ষেত্রে সুবিধা হয়। হাঁটলে স্ট্রেস হরমোনের ক্ষরণ হয় বলে বলছে গবেষণা।

সূত্র : আনন্দবাজার।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা