kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭। ২ মার্চ ২০২১। ১৭ রজব ১৪৪২

এই পাঁচটি নিয়ম মেনে চললে মিলবে গ্যাসের ব্যথা থেকে মুক্তি

অনলাইন ডেস্ক   

২২ জানুয়ারি, ২০২১ ১২:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এই পাঁচটি নিয়ম মেনে চললে মিলবে গ্যাসের ব্যথা থেকে মুক্তি

কখনও বা গলা-বুক জ্বালা করছে আবার কখনও পেট ব্যথা। এ সবই গ্যাসের সমস্যার লক্ষণ। শীত কাল হলে যেন গ্যাসের সমস্যা আরও বেশি করে পেয়ে বসে। কেউ কেউ সারাবছর এই সমস্যায় ভোগেন। এজন্য সবসময়ই ওষুধ খেতে হয়। তবে ঘরোয়া কিছু টোটকা মেনে চললে গ্যাসের সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া সম্ভব।

১.কলা খেতে আমরা সকলেই কমবেশী ভালবাসি। কলায় প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম থাকে, যা প্রাকৃতিক অ্যান্টাসিড। অ্যাসিড রিফ্লাক্সের বিরুদ্ধে প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে কলঅ। প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে একটা করে কলা খান খালি পেটে। কিছুদিনের মধ্যেই আপনি উপকার পাবেন।

২.তুলসী পাতা নিয়ে নতুন করে বলার কিছুই নেই। তুলসী পাতা পাকস্থলীতে শ্লেষ্মার মতন পদার্থ উৎপাদনে সাহায্য অরে। সকালে উঠে আপনি যে চা খান তারমধ্যে কয়েকটা তুলসী পাতা দিয়ে দিন। তুলসী পাতা যেমন আলদা ফ্লেভার নিয়ে আসবে তেমনি গ্যাসের ব্যাথা থেকে মুক্তি দিবে।

৩.মুহূর্তেই আপনার গ্যাসের ব্যথা কমাতে পারে মৌরি। খাওয়ার পরে মৌরি চিবিয়ে খেলে অ্যাসিডিটি হওয়ার সম্ভাবনা থাকেনা। রাতের বেলা ঘুমোতে যাওয়ার আগে পানিতে মৌরি ভিজিয়ে রাখুন। পরের দিন সকালে খালি পেটে কিংবা গরম পানিতে মৌরির সঙ্গে কয়েকটি পুদিনা পাতা দিয়ে খেতে পারেন।

৪.আদা-রসুন গ্যাস কমাতে সাহায্য করে। আদা খাবার খুব তাড়াতাড়ি হজম করায়। তাই খাওয়ার ঘণ্টাখানেক আগে আদা কুঁচি করে বিটলবণ দিয়ে খান। এতে গ্যাসের সমস্যা থাকবেনা। রসুন শুধু রান্নায় স্বাদ বাড়ায় না বরং হজমও ভালো করে।

৫.টকদই এর কোন বিকল্প নেই। টকদইয়ে থাকে ক্যালসিয়াম, যা পাকস্থলীতে গ্যাস তৈরি হতে দেয়না। এছাড়া টকদইয়ের ল্যাকটিক অ্যাসিড হজম প্রক্রিয়াকে আরও শক্তিশালী করে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা