kalerkantho

রবিবার । ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৩১  মে ২০২০। ৭ শাওয়াল ১৪৪১

ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ইথানল নয়

রিয়াজুল হক   

৯ এপ্রিল, ২০২০ ১২:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ইথানল নয়

মুরগি আর মানুষ কখনো এক হয়? মুরগির ভাইরাস নিয়ে আপনি ল্যাবে সফলতা পেয়েছেন। মানুষের ওপর তো কোনো প্রয়োগই হয়নি। সেই মানের ল্যাবও নাই।

মহামারীর এই সময়ে আতঙ্কিত মানুষদের জানিয়ে দেয়া হলো, ইথানল ভেপার কি পরিমাণ নিলে কোভিড-১৯ এর রোগী উপকার পাবে। এটা কোনো কথা হলো? ইথানলের ক্ষতিকর দিকগুলো তো সাধারন মানুষ জানে না।

সারা বিশ্বের গবেষকরা গত ৪/৫ মাস ধরে গবেষণা করে যে ওষুধ বা ভ্যাকসিন এখনো আবিষ্কার করতে পারলো না, আর আমরা সরাসরি বলে দিচ্ছি ইথানলের কথা। প্রয়োগ বিধিও বলে দিচ্ছি! 

এখন ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কেউ যদি ইথানল ভেপার ব্যবহার করে অসুস্থ হয়, তাহলে সেই দায়িত্ব কে নেবে? আমাদের অনেক মানুষই তো সর্দি, কাশি হলে এখন ভয়ে ডাক্তারের কাছে যায় না। এখন তো দেখা যাবে, বাজারে ইথানল পাওয়া যাচ্ছে না। দামও বেড়ে যাবে।

আমেরিকায় করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া নিজে নিজে ক্লোরোকুইন খেয়ে কিন্তু মারাও গেছেন, বিষয়টা আমাদের সবার মাথায় রাখা দরকার ছিল।

গত মাসে  ইরানে খবর প্রচার হয়েছিল যে, মদ খেলে কোভিড-১৯ থেকে সুস্থ হওয়া যায়। লোকজন মদ খাওয়া শুরু করল। বিষাক্ত মদ খেয়ে সেই সেময় ৭৩ জন মারা গেল। আবার দক্ষিণ আফ্রিকার এক ফাদার করোনাভাইরাস থেকে মুক্তির জন্য তার ভক্তদের নিজ হাতে ডেটল খাইয়ে দিলেন (তিনি নাকি স্বপ্নে ডেটলের কথা জেনেছিলেন)। এ ঘটনায় ডেটল পানকারী ৫৯ জন মারা যায়।

মানুষ এখন ভয়ে আছে। সবাই আতঙ্কগ্রস্ত। ঘর থেকে বের হয়না। সারাদিন টিভি, মোবাইল নিয়েই থাকে। কোনোকিছুর সন্ধান পেলে চেষ্টা করবে সেই জিনিসটা নিজের উপর প্রয়োগ করতে। হয়তো পরিবারের অন্য সদস্যরাও জানতে পারবে না।

কোনোকিছু শতভাগ পরীক্ষিত এবং অনুমোদিত না হলে, সেটা মিডিয়ার সামনে আনা উচিত না। কোনো গবেষণা পেপার থাকলে, সেটা জার্নালে দেন। পরীক্ষামূলক কাজ কিংবা অনুমোদন ভেতরে ভেতরে করতে হবে। জনসমক্ষে নয়। মানুষকে পরীক্ষিত ও অনুমোদিত চূড়ান্ত ফলাফল দিন। সেটাতেই সকলের মঙ্গল।

লেখক- যুগ্ম পরিচালক, বাংলাদেশ ব্যাংক।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা