kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪১

অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে বিলুপ্তির ঝুঁকিতে কোয়ালা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ জানুয়ারি, ২০২০ ১২:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে বিলুপ্তির ঝুঁকিতে কোয়ালা

প্রায় দু'মাসেরও বেশি সময় ধরে ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে অস্ট্রেলিয়া। দাবানলে বন্যপ্রাণীদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। নিঃশব্দে মারা গিয়েছে প্রায় ৫০ কোটি প্রাণী।

একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করেছে। সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশবিদদের দেওয়া তথ্য বলছে, সেপ্টেম্বর থেকে এখনও পর্যন্ত প্রায় ৫০ কোটি স্তন্যপায়ী, পাখি ও সরীসৃপের মৃত্যু হয়েছে। সেই তথ্য থেকেই জানা গেছে, দাবানলে পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে প্রায় হাজার হাজার কোয়ালা। প্রায় বিলুপ্তির তালিকায় থাকা এই প্রজাতির বেশিরভাগেরই বাস ছিল অস্ট্রেলিয়ার বনাঞ্চলে। মূলত, নিউ সাউথ ওয়েলসের মধ্য দক্ষিণ উপকূলবর্তী অঞ্চলে বসবাসরত প্রায় আট হাজার কোয়ালার মৃত্যু হয়েছে। যা এই অঞ্চলের কোয়ালার সংখ্যার প্রায় এক তৃতীয়াংশ।

পরিস্থিতির জেরে পরবর্তীতে মৃত প্রাণীদের দেহও খুঁজে পাওয়া যাবে না বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পরিবেশবিদরা। সোশ্যাল মিডিয়াতেও ছড়িয়ে পড়েছে অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে প্রাণ হারানো অসংখ্য প্রাণীর ঝলসানো ছবি। এত গরম -এর আগে কেউ দেখেনি অস্ট্রেলিয়ায়। ফলে দেশটিতে এই প্রাণীর সংখ্যা ব্যাপকভাবে কমে যেতে পারে বলে ধারণা করছেন বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞরা।

নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের মধ্য-উত্তর উপকূলে ২৮ হাজারের বেশি কোয়ালা বাস করে।  তবে এই অঞ্চলে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে যে ভয়াবহ দাবানল দেখা গেছে তাতে কোয়ালার সংখ্যা উল্লেখযোগ্য পরিমাণে কমে গেছে।প্রসঙ্গত, ক্যাঙ্গারুর মতো কোয়ালাও অস্ট্রেলিয়ার নিজস্ব প্রাণী।  অস্ট্রেলিয়ার জনগণের অত্যন্ত প্রিয় এই প্রাণীটি দাবানলের কারণে বাসস্থান হারিয়ে বিলুপ্তির ঝুঁকিতে রয়েছে।

দেশটির পরিবেশমন্ত্রী সুসান লে জানান, কোয়ালার বাসস্থানের শতকরা ৩০ ভাগ ধ্বংস হয়ে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।  তবে এই ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য দেয়া যাচ্ছে না।  দাবানল যখন পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে তখনই হিসেব করে প্রকৃত তথ্য বের করা হবে।এদিকে দাবানলের কবলে পড়া কোয়ালাদের উদ্ধার করে পানি খাওয়ানোর ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

ইন্টারনেট অবলম্বনে ফয়সাল রহমান

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা