kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

আপনার ত্বক কি অল্পতেই শুষ্ক হয়ে যাচ্ছে?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ অক্টোবর, ২০১৯ ২০:২৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আপনার ত্বক কি অল্পতেই শুষ্ক হয়ে যাচ্ছে?

বয়স বেড়ে যাওয়ার কারণে ত্বক তার উজ্জ্বল ভাব হারাতে শুরু করে। এর মূল কারণ হলো, ত্বকের মধ্যে উপস্থিত তেলের পরিমাণ কমে যাওয়া। ফলে ত্বক আর্দ্রতা হারাতে শুরু করে। 

বর্ষাকাল শেষ হতে না হতেই ত্বকে টান পড়তে শুরু করে। বিশেষ করে অনেকক্ষণ এসিতে থাকলে কিংবা পানি দিয়ে মুখ ধোয়ার পর ত্বকে টান ধরতে শুরু করে। ত্বক যেন আর্দ্রতা না হারায়, সেজন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। কারণ, ত্বক আর্দ্রতা হারালে বলিরেখা পড়ে। বলিরেখা মানেই বয়সের ছাপ।

বার বার পানি দিয়ে মুখ ধোয়া, অনেকক্ষণ গোসল করা কিংবা অতিরিক্ত স্ক্রাবিংয়ের ফলে আর্দ্রতা হারাতে পারে ত্বকের। সে কারণে মুখ ধোয়া বা খসখসে তোয়ালে দিয়ে মুখ মোছার আগে কিছু বিষয় খেয়াল রাখুন। 

ফেসওয়াশ বা টোনারের ক্ষেত্রে বেছে নিন প্রাকৃতিক এবং ক্ষতিকারক রাসায়নিকমুক্ত সামগ্রী। চড়া রং বা সুগন্ধিযুক্ত প্রসাধনী লোভনীয় হলেও তা থেকে দূরে থাকুন। ত্বকের শুষ্কতার সমস্যা থাকলে অ্যালকোহল বা প্রিজারভেটিভযুক্ত প্রসাধনী ব্যবহার করবেন না।

বরং ঘরোয়া পদ্ধতিতে আস্থা রাখলেই মিলবে বেশি উপকার। ত্বক কোমল এবং উজ্জ্বল করে তুলতে হলে কী কী ঘরোয়া উপায়ে রাখবেন আস্থা? 

তৈরি করে নিন নিজস্ব ক্লিনজার

প্রথমে মুখে ও গলায় লাগিয়ে নিন অলিভ অয়েল অথবা কোল্ড প্রসেসড নারকেল তেল। এবার গরম পানিতে একটি নরম তোয়ালে ভিজিয়ে নিংড়ে নিন। এটি আলতোভাবে মুখের ওপর রাখুন। তোয়ালে ঠান্ডা হয়ে গেলে সরিয়ে ফেলুন এবং মুখে থাকা বাড়তি তেল মুছে নিন।

ব্যবহার করুন প্রাকৃতিক স্ক্রাব

আধা কাপ চিনি আর দুই টেবিল চামচ অলিভ ওয়েল বা নারকেল তেল ও কয়েক ফোঁটা ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে তৈরি করুন স্ক্রাব। গোসলের আগে এই স্ক্রাব লাগিয়ে নিন মুখসহ সারা শরীরে। এর ব্যবহারে দূর হবে ত্বকের কালো ভাব।

ঠান্ডা দুধ

ত্বকে যদি কোনো কারণ ছাড়াই জ্বালাভাব অনুভব করেন, তাহলে বুঝবেন ত্বক আর্দ্রতা হারাচ্ছে। সেই সময় মুশকিল আসান হতে পারে ঠান্ডা দুধ। তুলা ঠান্ডা দুধে ভিজিয়ে পুরো মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণ রাখুন। তার পর ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ফিরবে ত্বকের আর্দ্রতা।

ফল দিয়ে বানান ফেসপ্যাক

অ্যাভোকাডো বা পাকা পেঁপের শাঁস, অলিভ কিংবা নারকেল তেল ও মধু একসঙ্গে মিশিয়ে ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে নিন। তার পর এই প্যাক লাগিয়ে নিন মুখে, গলায় এবং হাতে। ১৫-২০ মিনিট পর ধুয়ে নিয়ে লাগিয়ে নিন ময়শ্চারাইজার। 

ব্যবহার করুন নারকেল তেল

নারকেল তেল খুব ভালো ময়শ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ত্বকে লাগান নারকেল তেল। যাদের পা ফাটার সমস্যা রয়েছে তারাও ব্যবহার করতে পারেন নারকেল তেল। ফল মিলবে হাতে-নাতে।

গোসলের পর ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করুন

বছরের যে কোনো সময়ই গোসলের পর ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিৎ। অ্যালোভেরা জেল ও নারকেল তেলের মিশ্রণ খুব ভালো ময়শ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে। শুধু মাত্র মুখেই নয়, সারা শরীরেই লাগাতে পারেন ময়শ্চারাইজার।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা