kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ নভেম্বর ২০১৯। ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কোন ধরনের বালিশে ভালো ঘুম হয়?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ১৬:০২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কোন ধরনের বালিশে ভালো ঘুম হয়?

ভালো ঘুমের জন্য প্রয়োজন আরামদায়ক বিছানা, বালিশ আর শান্ত পরিবেশ। বিশেষ করে বালিশ ঠিকঠাক না হলে অনেকেই শান্তিতে ঠিক মতো ঘুমোতে পারেন না। সারা রাত এপাশ-ওপাশ করে কেটে গেলেও সেভাবে ঘুম হয় না! তাই ভালো ঘুমের জন্য বালিশটা হওয়া চাই একদম পারফেক্ট! জানেন কি কোন ধরনের বালিশকে পারফেক্ট বলা যেতে পারে? জেনে নিন ভালো ঘুমের জন্য গুরুত্বপূর্ণ টিপস।

বালিশের উপকরণ: বালিশের উপরকরণ প্রাকৃতিক হওয়াই ভালো। ফোমের বালিশ বেশ নরম হলেও ঘুমানোর জন্য মোটেই তেমন আরামদায়ক নয়। এ ধরণের বালিশে ঘাড় ব্যথা থেকে শুরু করে স্বাস্থ্যেরও নানারকম ক্ষতি হয়। তাই শিমুল তুলার তৈরি বালিশই ভালো ঘুম এবং স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। তাই একটু দামি হলেও তুলার বালিশই ব্যবহার করুন।

আকৃতি: বালিশের আকৃতি আপনার পছন্দ মতোই নির্বাচন করতে পারবেন। তবে খুব বেশি ছোট বালিশে আপনার ঘুম ভালো হবে না। মিডিয়াম, লার্জ, স্ট্যান্ডার্ড, কিং, কুইন ইত্যাদি নানা মাপের তৈরি করা বালিশ বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। এর থেকে আপনার পছন্দসই একটি বালিশ বেছে নিতে পারেন।

বালিশের কভার: বালিশের কভার খুব বেশি খসখসে হওয়া উচিত নয়। বিশেষ করে কারুকাজ করা চাদরের সঙ্গে যেই বালিশের কভারগুলো দেওয়া থাকে সেগুলো রাতে ঘুমানোর সময় ব্যবহার করা উচিত না। বালিশের কভার হিসেবে নরম সুতির কাপড়ের বা সার্টিন কাপড়ের কভারই সবচেয়ে ভালো।

বালিশের উচ্চতা: অতিরিক্ত উঁচু বা একদম নিচু বালিশ ঘুমের জন্য এবং স্বাস্থ্যের জন্য মোটেই ভালো নয়। বালিশের উচ্চতা হওয়া উচিত মাঝারি। বালিশের উচ্চতা এমন হওয়া উচিত, যাতে কাঁধ বা ঘাড় না বাঁকিয়ে মোটামুটি সোজা বা সমান্তরাল রেখে শোয়া যায়। যদি এক পাশে ফিরে শোয়ার অভ্যাস থাকে, তাহলে বিছানায় শোয়ার পরে কাঁধের সঙ্গে গলার উচ্চতা যত টুকু তত টুকুই হওয়া উচিত বালিশের উচ্চতা। আর যদি আপনি চিৎ হয়ে শুতে পছন্দ করেন, তাহলে আপনার ঘাড় এবং বালিশের উচ্চতা সমান্তরালে থাকা উচিত।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা