kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

গর্ভবতী মেয়েদের কেন এই খাবারগুলো খেতে ইচ্ছে করে?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ মে, ২০১৯ ১৪:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গর্ভবতী মেয়েদের কেন এই খাবারগুলো খেতে ইচ্ছে করে?

গর্ভবতী মেয়েদের শারীরিক পরিবর্তনও যেমন ঘটে তেমনই জিভের স্বাদেরও রদবদল ঘটতে থাকে সময়ে সময়ে। সাধারণত হবু মায়ের ডায়েট চার্টে যেমন পর্যাপ্ত পুষ্টির জোগান থাকে, তেমনই চিকিৎসকরাও কখনও তাদের পছন্দসই কিছু খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেন। তবে অবশ্যই পরিমিত পরিমাণে। গর্ভবতী অবস্থায় বিশেষ কিছু খাবার খাওয়ার প্রতি টান থাকে। কারও আইসক্রিম, চকোলেট খেতে ইচ্ছে হয়। কেউ আবার ঝাল খাবার বা আচার খেতে চান। কিন্তু কেন এই খাবারগুলি খেতে ইচ্ছে হয় এই সময়ে?

চিকিৎসকদের মতে, এই খাবারের ইচ্ছের নেপথ্যে শুধুই স্বাদ পরিবর্তনই কারণ এমন নয়, বরং শরীরের নানা পরিবর্তনের জন্যই এমন স্বাদের প্রতি ঝোঁক বাড়ে। গর্ভাবস্থায় শরীর গরম হয়ে যায়। তাই এই সময় শরীর ঠান্ডা করার জন্যই ঝাল খাবার খেতে ইচ্ছে হয়। ঝাল খাবার খেলে ঘাম হয়। ঘাম ঝরে গেলে শরীর ঠান্ডা হয়ে যায়। গর্ভাবস্থায় টক ও আচারের প্রতি মেয়েদের বিশেষ টান থাকে। আচারে প্রচুর পরিমাণে সোডিয়াম ও অম্ল থাকে বলেই টক খাবার খাওয়ার ইচ্ছে হয়। শরীরে সোডিয়াম ও অম্লের চাহিদাও এই সময় বেড়ে যায়।

গর্ভবতী মেয়েদের মিষ্টি জাতীয় খাবারের প্রতিও একটি বেশি ঝোঁক থাকে। এর মধ্যে আইসক্রিম অন্যতম। এই সময়ে শরীর ক্যালশিয়ামের প্রয়োজন হয়। আইসক্রিমে অনেক পরিমাণে ক্যালশিয়াম থাকে। তার জন্যই আইসক্রিমের প্রতি বিশেষ টান অনুভব করেন মেয়েরা। চকোলেটের প্রতিও বিশেষ টান থাকে মেয়েদের এই সময়ে। শরীরে শর্করার প্রয়োজন থাকে এই সময়। চকোলেটে ফ্যাটের পাশাপাশি শর্করাও থাকায় এই সময় চকোলেটের প্রতি টান বাড়ে। তবে চিকিৎসকরা ডার্ক চকোলেট খাওয়ার পরামর্শ দেন কারণ এতে ফ্লাভনয়েড থাকে, যা অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টের কাজ করে। 

গর্ভাবস্থায় শরীরে নানা রকমের অস্বস্তি থাকে। এই অস্বস্তি দূর করতে মেয়েরা এমন খাবার খেতে চান যা শরীরকে আরাম দেয়। পিনাট বাটার এদের মধ্যে অন্যতম। প্রসূতিদের রেড মিট খাওয়ার প্রতিও এই সময়ে বিশেষ আকর্ষণ দেখা যায়। কারণ রেডমিট শরীরে এই সময়ে আয়রনের মাত্রা ঠিক রাখে। তবে চিকিৎসকরা বেশি রেড মিট খেতে না করেন, কারণ এতে কোষ্ঠ্যকাঠিন্যের সমস্যা হয়। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা