kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

শীতকালে চুলের যত্নে করনীয়..

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ২২:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শীতকালে  চুলের যত্নে করনীয়..

শীতকালে ত্বক অনেকটাই শুষ্ক হয়ে যায়। আর শীত যদি হয় তীব্র তবে তো কথাই নেই। তাই, এসময় ত্বকের যত্নে খেয়াল রাখি কম-বেশী সকলেই। শীতকালে ত্বকের যত্ন নিলেও চুলের যত্নে সাধারনত অবহেলা করে থাকি আমরা। এর ফলে, চুলে খুশকী পড়া সহ আরো জটিল সমস্যা দেখা দেয়।  শুধু তাই নয়, শীতকালে  চুলের যত্নে অবহেলার কারনে ফাংগাল ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেয়। এ সমস্যা থেকে উত্তরণে করনীয় কিছু বিষয় নীচে তুলে ধরা হলো। 

 
নারকেল তেল-শ্যাম্পু ব্যবহার :

মাথায় ভালভাবে নারকেল তেল মাখুন। তার পরে আধ ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে নিন। সালফেট নেই এমন শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। স্ক্যাল্পে বেশি জোরে শ্যাম্পু দিয়ে ঘষবেন না। এতে স্ক্যাল্প আরও শুষ্ক হয়ে যায়।
 
খাবার মেনু :
খাবার মেনু গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ খাবার খান। আখরোট ও বাদামে প্রচুর ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি এসিড রয়েছে। এছাড়াও ডিম, তেলযুক্ত মাছ, মাংস, চিজ, ফল ইত্যাদি প্রোটিন-যুক্ত খাবার খান। দুধ বা দুগ্ধজাত খাবার খেলে চুলের ঔজ্জ্বল্য বাড়ে। তাই খাবার মেনুতে যেন অবশ্যই এই ধরনের খাবার থাকে। 

চুলে রং করাকে না বলুন : 
শীতের সময়ে একেবারেই চুলে রং করা বা স্ট্রেট বা স্মুদিং করবেন না। এর ফলে, খুশকি ও চুল পড়ার সমস্যাতে ভুগতে পারেন আপনি। 

পর্যাপ্ত পানি পান :
দেহে ঠিকভাবে রক্ত সঞ্চালন হওয়া খুব প্রয়োজন। আর তার জন্য অবশ্যই বেশি করে পানি পান করা দরকার। শীতকালে হাইড্রেটেড থাকলে স্ক্যাল্পেও আর্দ্রতা বজায় থাকবে।

কেমিক্যাল ট্রিটমেন্টকে না বলুন :
চুলেরসমস্যা এড়াতে অনেকেই বিউটি পার্লার থেকে কেমিক্যাল ট্রিটমেন্ট করে থাকেন।এ ধরনের কেমিক্যাল ব্যবহার করতে নিষেধ করছেন বিশেষজ্ঞরা। কেমিক্যাল ট্রিটমেন্টে চুলের সাময়িক সৌন্দর্য বাড়লেও, তা স্থায়ী হয় না। 

এই শীতে এই নিয়মগুলো মেনে চললে আপনার চুলতো ভালো থাকবেই, ভালো থাকবেন আপনিও, সন্দেহ নেই। 


তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া


 


 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা