kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৮ জুন ২০১৯। ৪ আষাঢ় ১৪২৬। ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

সবিশেষ

সন্তানের খাবারে অযত্ন হলে হতে পারে জেলও!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সন্তানের খাবারে অযত্ন হলে হতে পারে জেলও!

অনেক শিশুই মাছ, মাংস, ডিম ছাড়া অন্য খাবার মুখে তুলতে চায় না। এ ধরনের শিশুদের অনেক মা-বাবাই জোর করে অন্য খাবার খাওয়ানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু ইউরোপের দেশ বেলজিয়ামে বোধ হয় সেই দিন শেষ হতে চলেছে। সেখানে খাবারদাবার নিয়ে সন্তানের ওপর জবরদস্তি হলে কিংবা সন্তানের অযত্ন হলে অভিভাবকদের জেল-জরিমানাও হতে পারে।

বেলজিয়ামের ‘রয়াল একাডেমি অব মেডিসিন’ গত ১৬ মে একটি পরামর্শপত্র জারি করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, জোর করে নিরামিষ খাওয়ালে শিশুদের অপুষ্টি কিংবা স্বাস্থ্যসংক্রান্ত সমস্যা হতে পারে। নিরামিষ খাবার একেবারে বন্ধ করার কথা বলা হয়নি বা নিরামিষ খাবার খাওয়ালে বিষয়টিকে শিশুদের প্রতি অযত্ন হিসেবেও দেখা হবে না। কিন্তু কঠোরভাবে যাঁরা সন্তানদের নিরামিষ খাবার খাওয়াবেন, সেই শিশুদের যদি কোনো শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়, তবে এই নিয়মের বলে অভিভাবকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া আরো সহজ হবে।

শিশু বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, যদিও চিকিৎসকদের পরামর্শ নিয়ে নিরামিষ খাওয়ানো যেতেই পারে, সে ক্ষেত্রে নিয়মিত রক্ত পরীক্ষা, সঠিক ভিটামিন কিংবা পরিপূরক খাবারের ব্যবস্থা করতে হবে। শিশুদের স্বাস্থ্যসংক্রান্ত নিয়ম মেনে না চললে অভিভাবকদের জেল-জরিমানা হতে পারে। শিশুদের পুষ্টিসংক্রান্ত সমস্যা হলে সেই পরিবার থেকে শিশুদের সরিয়ে অন্য জায়গায় রাখার কথাও বলা হয়েছে।

কেউ কেউ এই কঠোর নীতির বিরোধিতা করলেও শিশু বিশেষজ্ঞদের মত হলো, সঠিক খাদ্যাভ্যাসের অভাবে স্কুলপড়ুয়াদের মৃত্যুও হতে পারে। এমন পরিস্থিতি পরিবর্তন করতে এ ধরনের নিয়ম প্রয়োজন আছে। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা