kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

ঘুমন্ত শ্রমিকদের ওপর কাঠবোঝাই জিপ, নিহত ৫

পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ছাত্রীসহ তিনজনের মৃত্যু

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৬ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ঘুমন্ত শ্রমিকদের ওপর কাঠবোঝাই জিপ, নিহত ৫

কাজ শেষে একটি টিনশেড ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন ইটভাটার একদল ক্লান্ত শ্রমিক। তাঁদের মধ্যে পাঁচজনের আর ঘুম ভাঙেনি। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোররাতে একটি কাঠবোঝাই জিপ ঘুমন্ত শ্রমিকদের ওপর গিয়ে উল্টে পড়লে ওই পাঁচজনের প্রাণ যায়। আহত হন তিন শ্রমিক। নিহতদের মধ্যে দুজন বাবা-ছেলে। চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের গাবতল এলাকায় মো. হাছান কম্পানির ‘এসআরবি’ ইটভাটায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এ ছাড়া নওগাঁর রানীনগর, টাঙ্গাইলের মধুপুর ও হবিগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় এক স্কুলছাত্রীসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে ট্রাক ও অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত হয়েছে সাতজন। কালের কণ্ঠ’র প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

রাঙ্গুনিয়া (চট্টগ্রাম) : নিহত শ্রমিকরা হলো মো. জাফর (৩৫), মো. নাজিম (২৫), আবদুল মান্নান (৩৫), আবদুল মোনাফ (৫০) ও মো. বেজু (১৫)। বেজু আবদুল মোনাফের ছেলে বলে জানিয়েছেন ইসলামপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন চৌধুরী মিল্টন। আহত শ্রমিক মো. ছিদ্দিক (৩২), মো. রিয়াজ (১৬) ও ছোট নাজিমকে (১৮) চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে। হতাহত শ্রমিকদের গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বেপরোয়াগতির জিপটি (চাঁদের গাড়ি) রাঙামাটি থেকে সংরক্ষিত বনের কাঠ ভরে রাঙ্গুনিয়ার ইসলামপুরের একটি ইটভাটায় যাচ্ছিল। ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে জিপটি গাবতল-মরিয়মনগর সড়কের পাশে এসআরবি ইটভাটার শ্রমিকদের থাকার জন্য নির্মিত টিনশেড ঘরে ঢুকে পড়ে উল্টে যায়। নিচে চাপা পড়ে পাঁচজনের মৃত্যু হয়। শ্রমিকদের মাঝি নুরুল আলম জানিয়েছেন, দক্ষিণ হাতিয়ার বিভিন্ন গ্রামের এই শ্রমিকরা কয়েক মাস ধরে এসআরবি ইটভাটায় কাজ করছিলেন। 

রাঙ্গুনিয়া ফায়ার স্টেশনের কর্মকর্তা এনি বড়ুয়া বলেন, ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে চারটি মরদেহ উদ্ধার করেন। রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি ইমতিয়াজ মোহাম্মদ আহসানুল কাদের ভূঁইয়া জানান, জিপটি জব্দ করা হয়েছে। চালক ও তার সহকারী (হেলপার) পলাতক।

আত্রই-রানীনগর (নওগাঁ) : গতকাল বিকেলে রানীনগরের আবাদপুকুর-আদমদীঘি রাস্তার বগাড়বাড়ী বাজার এলাকায় ট্রাক্টরের চাপায় তাসতিয়া আক্তার (১৪) নামের এক স্কুলছাত্রী নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে তাসতিয়ার দুই বান্ধবী মমতাজ খাতুন (১৬) ও সুমি আক্তার (১৬)। তাসতিয়া কামতা জগত্পুর গ্রামের উজ্জ্বল হোসেনের মেয়ে। মমতাজ কামতা গ্রামের হাসেম আলী ও সুমি মকলেছর রহমানের মেয়ে। আহতদের আদমদীঘি উপজেলার একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। হতাহতরা কামতা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র জানায়, তাসতিয়া, মমতাজ ও সুমি বগারবাড়ী বাজারে প্রাইভেট পড়া শেষে হেঁটে বাড়ি ফিরছিল। তখন বিপরীত দিক থেকে ইটবোঝাই একটি ট্রাক্টর এসে সজোরে ধাক্কা দিয়ে গাছের সঙ্গে চাপা দিলে তাসতিয়ার মৃত্যু হয়। ট্রাক্টরচালক পালিয়ে যায়।

রানীনগর থানার ওসি এ এস এম সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ঘটনাস্থলে দুজন অফিসারকে পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি অনুসারে প্রয়াজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মধুপুর (টাঙ্গাইল) : উপজেলার মধুপুর-ময়মনসিংহ মহাসড়কের কাকরাইদ ব্রিজের কাছে গতকাল সকালে অটোরিকশা উল্টে গেলে এর যাত্রী মজনু মিয়া (৪৫) নিহত হন। তিনি মধুপুর পৌর এলাকা টেংরী গ্রামের মৃত আতাব আলীর ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কাকরাইদ ব্রিজের কাছে ময়মনসিংহগামী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা বিপরীত দিক থেকে আসা মোটরসাইকেলকে সাইড দিতে গিয়ে উল্টে যায়। এতে মজনু মিয়া গুরুতর আহত হন। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাঁকে মধুপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।

সৈয়দপুর (নীলফামারী) : হবিগঞ্জে নতুন চাকরিতে যোগ দিতে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন নীলফামারীর সৈয়দপুরের কিসামত কামারপুকুর এলাকার সাজেদুল আলম সাজু (২৭)। বুধবার সন্ধ্যায় হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। সৈয়দপুর উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজুর বাবার নাম মো. আব্দুস সোবহান। গতকাল রাতে তাঁর লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

স্বরূপকাঠি (পিরোজপুর) : বুধবার সন্ধ্যায় স্বরূপকাঠির স্বরূপকাঠি-পিরোজপুর সড়কের বিআরডিবি অফিস মোড়ে একটি ট্রাক যাত্রীবাহী অটোরিকশাকে চাপা দিলে শিশু, নারীসহ সাতজন আহত হয়। তারা হলো জিহাদ (১০), সাথী (৩৫), ইতি (১৮), আকাশ (১৮), ইভা (১৭), বাবুল সরদার (৫০) ও খাদিজা (৪০)। গুরু আহত সাথী, আকাশ ও বাবুলকে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ট্রাকটি আটক করে থানায় নিয়ে গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা