kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

ঢাকায় ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

সন্ত্রাস মোকাবেলায় সহযোগিতা বাড়াবে বাংলাদেশ-ব্রুনেই

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সন্ত্রাস মোকাবেলায় সহযোগিতা বাড়াবে বাংলাদেশ-ব্রুনেই

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল ব্রুনেইয়ের জালান কেবঙ্গসান কূটনৈতিক এনক্লেভে বাংলাদেশ হাইকমিশনের নতুন চ্যান্সারি ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর উন্মোচন করেন। ছবি : ফোকাস বাংলা

সন্ত্রাস মোকাবেলায় সহযোগিতা বাড়াবে বাংলাদেশ ও ব্রুনেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সদ্যঃসমাপ্ত ব্রুনেই সফর নিয়ে দুই দেশের যৌথ ঘোষণায় এ কথা বলা হয়েছে। তিন দিনের সফরের দ্বিতীয় দিন গত সোমবার প্রধানমন্ত্রী ব্রুনেইয়ের সুলতান হাসানাল বলকিয়াহর সঙ্গে বৈঠক করেন।

সফর নিয়ে ২০ দফা যৌথ ঘোষণার ১৮তম দফায় বলা হয়েছে, সন্ত্রাস, উগ্রবাদ, পরিবেশগত সুরক্ষা, টেকসই উন্নয়নসহ অভিন্ন উদ্বেগ ও

স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে জাতিসংঘ, ইসলামী সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি), কমনওয়েলথ, আসিয়ান রিজিওনাল ফোরামসহ আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সহযোগিতা আরো জোরদারে উভয় পক্ষ সম্মত হয়েছে।

এ ছাড়া এই অঞ্চল ও বিশ্বের শান্তি, স্থিতিশীলতা ও সমৃদ্ধির স্বার্থে শৃঙ্খলাভিত্তিক ব্যবস্থাকে উৎসাহিত করতেও বাংলাদেশ ও ব্রুনেই সম্মত হয়েছে বলে যৌথ ঘোষণায় উল্লেখ রয়েছে। উভয় নেতাই আসিয়ানের

সঙ্গে সম্পর্ক জোরদারে বাংলাদেশের অব্যাহত আগ্রহের কথা স্বীকার করেন। তাঁরা মনে করেন, পারস্পরিক স্বার্থে এই সম্পর্ক আরো জোরদারে অনেক সম্ভাবনা আছে। বাংলাদেশ ও ব্রুনেই—উভয় পক্ষই দুই দেশের মধ্যে যোগাযোগ বাড়াতে সম্মত হয়েছে। তারা দুই দেশের মধ্যে ‘এয়ার সার্ভিসেস অ্যাগ্রিমেন্ট’ দ্রুত সই করার উদ্যোগকেও স্বাগত জানিয়েছে।

রাখাইন রাজ্য থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে সাময়িকভাবে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া ১১ লাখ রোহিঙ্গার প্রতি এ দেশের মানবিক সহায়তা ও প্রত্যাবাসন উদ্যোগকে ব্রুনেই আমলে নিয়েছে। ব্রুনেই রোহিঙ্গাদের স্বেচ্ছায়, নিরাপদ, সম্মানজনক ও টেকসই প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে বাংলাদেশের উদ্যোগের প্রশংসা করেছে।

‘প্রবাসীদের সুযোগ-সুবিধা দেখা সরকারের দায়িত্ব’

বাসস জানায়, বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বৃদ্ধিতে বিশেষ অবদানের জন্য প্রবাসী বাংলাদেশিদের ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, প্রবাসীদের কল্যাণ নিশ্চিত করা তাঁর সরকারের দায়িত্ব। তিনি বলেন, ‘বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বৃদ্ধিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিশেষ অবদান রয়েছে। বিশেষ করে এ ক্ষেত্রে শ্রমিকদের অবদান অনেক বেশি। এ জন্য তাদের সুযোগ-সুবিধার বিষয়টি দেখা আমাদের দায়িত্ব।’

গতকাল মঙ্গলবার সকালে ব্রুনেইয়ের রাজধানীর জালান কেবাংসান কূটনৈতিক জোনে চ্যান্সেরি ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা বলেন, প্রবাসীরা তাদের অবস্থানকারী দেশগুলোর অবকাঠামো ও অর্থনৈতিক উন্নয়নেও ভূমিকা রাখছে। তিনি বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশির সংখ্যা বেশি এমন সব দেশে নিজস্ব মিশন নির্মাণের ওপর অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে। তবে পর্যায়ক্রমে প্রতিটি দেশে বাংলাদেশের নিজস্ব মিশন ভবন নির্মিত হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রবাসীদের সংখ্যা বেশি এমন দেশগুলোতে তাদের ছেলে-মেয়েদের যথাযথ শিক্ষার জন্য অন্তত একটি করে বাংলাদেশি স্কুল প্রতিষ্ঠার নির্দেশ এরই মধ্যে দেওয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন ও ব্রুনেইয়ে বাংলাদেশের হাইকমিশনার এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) মাহমুদ হোসেইন বক্তব্য দেন। পরে প্রধানমন্ত্রী রয়েল রেজালিয়া মিউজিয়াম পরিদর্শন করেন। সফর শেষ করে প্রধানমন্ত্রী গতকাল সন্ধ্যায়ই ঢাকায় ফিরেছেন।

 

 

মন্তব্য