kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

শ্লীলতাহানি

উড়ন্ত বিমানেই ১৭ নারী মিলে দায়ীকে পিটুনি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উড়ন্ত বিমানেই ১৭ নারী মিলে দায়ীকে পিটুনি

ভোর ৫টা ২০ মিনিটে দিল্লিতে নামার কথা ছিল স্পাইস জেটের দুবাই-দিল্লি ফ্লাইট। দুবাই থেকে বিমান আকাশে ওড়ার পরই ঘুমিয়ে পড়েছিল অধিকাংশ যাত্রী। তখনই ২৫ বছরের এক যুবতীকে তাঁর পাশের সিটের এক পুরুষ যাত্রী শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ। তাঁর চিৎকার শুনেই ঘুম ভাঙে বাবা ও অন্য যাত্রীদের। এরপর উড়তে থাকা বিমানের মধ্যেই শুরু হয় গণপিটুনি।

বিমান সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিমানে একদিকে বসেছিলেন ওই যুবতী; তাঁর পাশের সিটে শারিক খান নামে এক ইঞ্জিনিয়ার যাত্রী। অন্য পাশে বসেছিলেন তাঁর বাবা। শুক্রবার ভোর ৪টার দিকে ঘুমিয়ে পড়ার কিছুক্ষণ পর অস্বস্তি বোধ করেন ওই যুবতী। ঘুম ভেঙে গেলে তিনি দেখতে পান তাঁর গায়ের ওপর শারিক খানের হাত। তখন তিনি সরে গিয়ে শারিককে হাত সরাতে বলেন। হাত সরিয়ে নিলেও শারিক গালাগাল শুরু করেন এবং ওই যুবতীর গায়ে আঘাত করেন।

এর পরই চিৎকার শুরু করেন ওই যুবতী। চিৎকার শুনে ঘুম ভেঙে গেলে তাঁর বাবা ও অন্য যাত্রীরা পুরো ঘটনা শোনেন। এ সময় উল্টো গালাগাল করছিলেন অভিযুক্ত শারিক। এর পরই বিমানে থাকা অন্তত ১৭ নারী যাত্রী শারিককে ঘিরে ধরেন এবং কিল, ঘুষিসহ বেধড়ক পেটাতে শুরু করেন।

গণপিটুনি থেকে অভিযুক্তকে রক্ষা করতে দৌড়ে আসেন বিমানকর্মীরা। কিন্তু কিছুতেই তাঁদের থামানো যায়নি। মাইকে ঘোষণা করেও তাঁদের আলাদা করতে পারেননি কর্মীরা। ভোর ৫টা ২০ মিনিটে বিমানটি দিল্লি বিমানবন্দরে নামার সঙ্গে সঙ্গে সিআইএসএফ জওয়ানরা বিমানে ঢুকে মারামারি থামায়। মারামারি শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে পুরো বিষয়টি জানিয়ে রেখেছিলেন পাইলট এবং তাঁর সহকর্মীরা। অভিযুক্ত শারিকের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সূত্র : আনন্দবাজার।

মন্তব্য