kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

দ্বিতীয় দফার ৯৫ আসনে ভোট আজ

কৃষকদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি মোদির

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দ্বিতীয় দফার ৯৫ আসনে ভোট আজ

ভারতে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের দ্বিতীয় দফার ভোটযুদ্ধ আজ বৃহস্পতিবার। ব্যাপক ভোটারের উপস্থিতি এবং বিচ্ছিন্ন সংঘর্ষে প্রথম দফার ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হওয়ার পর আজ ভারতের ১২টি রাজ্য এবং একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৯৫টি আসনে ভোট নেওয়ার জন্য মঞ্চ প্রস্তুত করেছে নির্বাচন কমিশন। এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের তিনটি আসনও রয়েছে।

নির্বাচনী সূচি অনুসারে আজ ৯৭টি আসনে ভোট হওয়ার কথা ছিল। তবে তামিলনাড়ুর ভেলোরের দ্রাবিড়া মুনেত্রা কাজাগাম (ডিএমকে) দলের দপ্তর থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ উদ্ধার হওয়ার পর একটি আসনের নির্বাচন স্থগিত করা হয়। এ ছাড়া ত্রিপুরায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির কারণে একটি আসনের নির্বাচন স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন। ত্রিপুরার আসনটির ভোট হবে তৃতীয় দফায়। আজ সকাল ৭টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হবে। চলবে টানা সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। লোকসভা নির্বাচনের পাশাপাশি কয়েক রাজ্যে বিধানসভার উপনির্বাচনও অনুষ্ঠিত হবে।

আজ ভোটগ্রহণ করা হবে তামিলনাড়ুর মোট ৩৯টি আসনের মধ্যে ৩৮টিতে, কর্ণাটকের ২৮টির মধ্যে ১৪টিতে, আসামের ১৪টির মধ্যে পাঁচটিতে, বিহারের ৪০টির মধ্যে পাঁচটিতে, ছত্তিশগড়ের ১১টির মধ্যে তিনটিতে, জম্মু ও কাশ্মীরের ছয়টির মধ্যে দুটিতে, মহারাষ্ট্রের ৪৮টির মধ্যে ১০টিতে, মণিপুরের দুটি আসনের মধ্যে একটিতে, ওড়িশার ২১টি আসনের মধ্যে পাঁচটি, পুদুচেরির একটি, ত্রিপুরার দুটির মধ্যে একটি, উত্তর প্রদেশের ৮০টির মধ্যে আটটি এবং পশ্চিমবঙ্গের ৪২টির মধ্যে তিনটি আসনে।

তামিলনাড়ুতে ৩৮টি আসনে নির্বাচনের পাশাপাশি বিধানসভার ১৮টি আসনে উপনির্বাচনও অনুষ্ঠিত হবে। লোকসভা নির্বাচনের জন্য এ রাজ্যে আজ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে ৮২২ জন প্রার্থী আর বিধানসভায় ২৬৯ জন। ভোটারসংখ্যা ছয় কোটি। রাজ্যের মাদুরাই অঞ্চলে একটি ধর্মীয় উৎসবের কারণ ভোটগ্রহণের সময় রাত ৮টা পর্যন্ত বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

মহারাষ্ট্রে আস্থা তৈরির জন্য বেশ আগে থেকে নিরাপত্তা বাহিনীকে মোতায়েন করা হয়েছে। এ রাজ্যে ভোটার, প্রার্থী ও নির্বাচনী কর্মকর্তা—ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে সবাই। ১৭৯ জন প্রার্থী ভাগ্য নির্ধারণে মহারাষ্ট্রে আজ ভোট দেবে এক কোটি ৮৬ হাজার ভোটার। এরই মধ্যে অবশ্য তৃতীয় দফার ভোটের প্রচার শুরু হয়ে গেছে। এ মাসের ২৩ তারিখে তৃতীয় দফার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ভোটারদের আকৃষ্ট করতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গতকাল বুধবার প্রচার চালান মহারাষ্ট্রে মাধা এলাকায়। এক বিশাল জনসভায় যোগ দেন তিনি। কৃষকদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। আবার ক্ষমতায় গেলে পৃথক পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় গড়ে তোলা হবে বলেও ঘোষণা দেন। কংগ্রেস পার্টির রাহুল গান্ধী দুই দিন ধরে প্রচার চালাচ্ছেন কেরালায়। গতকালও তিনি ওয়ানাডে জনসভা করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তীব্র সমালোচনা করেন। এক সপ্তাহ আগে প্রথম দফার নির্বাচনে ৬৯.৪৩ শতাংশ ভোট পড়ে। এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের দুটি আসনে ভোট পড়ে ৮০ শতাংশেরও বেশি আর সবচেয়ে কম ভোট পড়ে বিহারে। দুই দফার নির্বাচন মিটে যাওয়ার পর আরো পাঁচ দফায় ভোট হবে। শেষ হবে ১৯ মে। শেষমেশ ২৩ মে ভোট গণনা ও ফলাফল ঘোষণা করা হবে। সূত্র : দ্য হিন্দু, টাইমস অব ইন্ডিয়া।

মন্তব্য