kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ মে ২০১৯। ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৭ রমজান ১৪৪০

ভারতে নির্বাচনী প্রচারণা

নায়ক ফেরদৌসের ভিসা বাতিল ফিরলেন ঢাকায়

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৭ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নায়ক ফেরদৌসের ভিসা বাতিল ফিরলেন ঢাকায়

শর্ত ভাঙার কারণে চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদের ভিসা বাতিল করেছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। আর এর পরপরই গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে জরুরি ভিত্তিতে তিনি ফিরেছেন। জানা গেছে, ফেরদৌসকে গতকাল বিকেলে ‘অনতিবিলম্বে ভারত ছাড়তে’ বলা হয়েছিল। একই সঙ্গে তাঁকে কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো বলছে, ‘বিজনেস ভিসা’ নিয়ে ভারতে গিয়ে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেন ফেরদৌস। অভিবাসী ইস্যুতে ইতিমধ্যে উত্তপ্ত ভারতীয় রাজনীতিতে এটি বিতর্কের জন্ম দেয়।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, এটি শুধু ভিসার শর্তের লঙ্ঘনই নয়, অন্য দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়েও সম্পৃক্ত হওয়া। বিষয়টি কেউ ভালোভাবে নেয়নি। এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনেও অভিযোগ পড়েছে। নির্বাচন কমিশন ওই অভিযোগ আমলে নিয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি নেতা জে পি মজুমদার নির্বাচন কমিশনে অভিযোগে বলেন, ‘ভারতের নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় কোনো বিদেশি অংশ নিতে পারে না। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেস একজন বাংলাদেশিকে ব্যবহার করে নির্বাচনী আচরণবিধি ভেঙেছে। এ ছাড়া ভিসাসংক্রান্ত আইন না মানায় ফেরদৌসকে গ্রেপ্তার করা উচিত।’

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিদেশি হয়ে নির্বাচনী প্রচারণার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পরপরই ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গতকাল বিকেলে ফেরদৌস আহমেদের ভিসা বাতিল ও তাঁকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে। এ ছাড়া তাঁকে ভারত ছাড়তেও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কলকাতায় ‘ফরেন রিজিওনাল রেজিস্ট্রেশন অফিসকে (এফআরআরও)’ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পালন করতে বলা হয়েছে।

‘কালো তালিকাভুক্ত’ হওয়ার ফলে ভবিষ্যতে ফেরদৌস ভারতের ভিসা পাবেন না। কলকাতা ও নয়াদিল্লির সূত্রগুলো গতকাল সন্ধ্যায় ফেরদৌসের বাংলাদেশে ফেরার কথা নিশ্চিত করেছে। সিনেমার শুটিংয়ের জন্য ভারতে গিয়ে ফেরদৌস কোন প্রেক্ষাপটে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিলেন তাও কর্তৃপক্ষ খতিয়ে দেখছে। গত রাতে ফেরদৌসের মোবাইল ফোনে কল করলেও তা বন্ধ পাওয়া গেছে।

মন্তব্য