kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

জাতীয় ঐক্যের সমাবেশে যোগ দিচ্ছে বিএনপি

শনিবারের এ সমাবেশ থেকে যৌথ ঘোষণা দেওয়া হতে পারে

শফিক শাফি    

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



জাতীয় ঐক্যের সমাবেশে যোগ দিচ্ছে বিএনপি

রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে আগামীকাল শনিবার আয়োজিত জাতীয় ঐক্যের সমাবেশে যোগ দেবে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল সেখানে যাবে এবং বক্তব্য দেবে। এ সমাবেশের ডাক দেওয়া গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের প্রশ্নে সেখানে সব দলের প্রতিনিধি রাখার পক্ষে মত দিয়েছেন। তাঁর মতে, জাতীয় ঐক্যের নেতৃত্ব ঠিক হবে অংশী দলগুলোর আলোচনার মধ্য দিয়ে। যৌথভাবেও পরিচালিত হতে পারে নেতৃত্ব। সে ক্ষেত্রে কোন দল থেকে কে নেতৃত্ব দেবেন সেটা সংশ্লিষ্ট দল ঠিক করবে। দলগুলো থেকে একজন বা দুজন নেতা এই যৌথ নেতৃত্বে আসতে পারেন।

সমাবেশে যোগদানের বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল কালের কণ্ঠকে বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনই প্রথম জাতীয় ঐক্যের ডাক দিয়েছিলেন। এখন সেই ঐক্য সৃষ্টি হতে যাচ্ছে। তাই স্বাভাবিকভাবেই বিএনপি এ সমাবেশে যোগ দেবে। তিনি জানান, মহাসচিবের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদলের সেখানে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আগামীকাল অনুষ্ঠেয় এ সমাবেশ থেকে দাবি আদায়ের কর্মসূচি দেওয়ার কথা রয়েছে। এসংক্রান্ত সিদ্ধান্ত আজ শুক্রবার যুক্তফ্রন্ট-জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার বৈঠক থেকে চূড়ান্ত হতে পারে। আজকের এ বৈঠক ড. কামাল হোসেনের বাসায়, নাকি বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বাসায় হবে, তা গত রাত পর্যন্ত জানানো হয়নি।

সূত্র বলছে, সাবেক রাষ্ট্রপতি বদরুদ্দোজা চৌধুরী, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ কয়েকটি রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতাদের আগামীকালের সমাবেশে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। কয়েকটি বাম দলের শীর্ষ নেতারাও যাতে উপস্থিত থাকেন সেটাও নিশ্চিত করার চেষ্টা চলছে। এ লক্ষ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের সঙ্গে বৈঠকে বসার কথা ছিল যুক্তফ্রন্টের। সন্ধ্যা ৬টায় রাজধানীর পুরানা পল্টনে সিপিবির কার্যালয়ে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও রাত ৮টায় এ প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত সেই বৈঠক হয়নি।

গতকাল ‘জনগণের ভোটাধিকার রক্ষা ও সুষ্ঠু নির্বাচন’ নিশ্চিত করতে নির্বাচনব্যবস্থার সংস্কার দাবিতে নির্বাচন কমিশন অফিস ঘেরাও কর্মসূচি ছিল আটটি বাম দলের মোর্চা বাম গণতান্ত্রিক জোটের। জাতীয় প্রেস ক্লাবে সমাবেশের পর মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীরা আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনের দিকে যাওয়ার পথে পুলিশ লাঠিপেটা  করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে আহত হয় গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকিসহ অনেকে। তাই বৈঠকটি আজ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

জাতীয় ঐক্যের সমাবেশে বিএনপির যোগ দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয় গত বুধবার রাতে গুলশানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে। সেখানে জানানো হয়, জাতীয় ঐক্যের পক্ষ থেকে বিএনপির প্রতিনিধিদলকে সমাবেশে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তাই তারা সেখানে যাবে। বিষয়টি দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানকে জানানো হয়েছে। তিনিও সবুজ সংকেত দিয়েছেন।

গতকাল রাতেও গুলশানে দলের সিনিয়র নেতাদের বৈঠকে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। মির্জা ফখরুলের সভাপতিত্বে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় শুরু হওয়া এ সভায় উপস্থিত ছিলেন দলের নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন প্রমুখ। সূত্র জানায়, এ বৈঠকে আগামীকালের সমাবেশে বিএনপির ‘স্ট্যান্ড’ কী হবে, তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। এ ছাড়া সভায় নেতারা সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে ১৩ দফা ও উপদফা এবং ৯টি লক্ষ্যে খসড়া চূড়ান্ত করার বিষয়ে আলোচনা করেছেন।

২২ তারিখের সমাবেশ ও বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য নিয়ে ড. কামাল হোসেন সাংবাদিকদের গতকাল বলেন, দেশের বিরাজমান অবস্থার পরিবর্তনের পক্ষে জনগণের মধ্যে একটি ঐকমত্য গড়ে উঠেছে। এ ঐকমত্যকে একটি কার্যকর লক্ষ্যের দিকে যাওয়াই সমাবেশের মূল ফোকাস। সমাবেশ থেকে কর্মসূচি আসার সম্ভাবনা আছে। ঐক্যপ্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত এক নেতা কালের কণ্ঠকে জানান, জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়ার উদ্যোগে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়ার আগে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। এ সমাবেশ থেকে সব দলের পক্ষে একটি যৌথ ঘোষণা যাতে দেওয়া যায় সে লক্ষ্যে কাজ করছেন তাঁরা। জামায়াতে ইসলামী বাদে বিরোধী রাজনৈতিক দল, সুধীসমাজ, বিভিন্ন পেশাজীবীকে এরই মধ্যে আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল বলেন, ‘২২ সেপ্টেম্বরের সমাবেশ থেকে বৃহত্তর রাজনৈতিক ঐক্য ঘোষণা হবে কি না সেটা নিয়ে আজকালের (বৃহস্পতিবার বা শুক্রবার) মধ্যে আবার বসব।’

আজ সংবাদ সম্মেলন করবেন ফখরুল : জাতীয় ঐক্য, চেয়ারপারসনের মামলা ও কর্মসূচি, সাম্প্রতিক রাজনৈতিক পরিস্থিতিসহ বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরতে আজ সংবাদ সম্মেলন করবেন মির্জা ফখরুল। সকালে গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন হবে বলে কালের কণ্ঠকে জানান প্রেস উইংয়ের সদস্য শামসুদ্দীন দীদার।

মন্তব্য