kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

একের পর এক এটিএম কার্ড জালিয়াতি

জাল হয়েছে সৌদি ব্যাংকের কার্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ মে, ২০১৬ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



জাল হয়েছে সৌদি ব্যাংকের কার্ড

প্রাইম ব্যাংকের অটোমেটেড টেলার মেশিন (এটিএম) বুথ থেকে যে কার্ডগুলো ব্যবহার করে টাকা তুলে নিয়েছে জালিয়াতচক্র, ওই কার্ডগুলো সৌদি আরবের একটি ব্যাংকের ইস্যু করা। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, কার্ডগুলো কয়েকজন সৌদি নাগরিকের। বাংলাদেশের ভেতর থেকে না অন্য কোনো দেশ থেকে কার্ডগুলোর গোপন তথ্য ফাঁস হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। তবে বাংলাদেশ ব্যাংক বিষয়টি খতিয়ে দেখবে বলে জানিয়েছে।

এ ছাড়া ফার্মগেট ও পান্থপথ বুথ থেকে যে দুজন টাকা তুলে নিয়ে সরে পড়েছে তারাও চীনা নাগরিক বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। প্রাইম ব্যাংকের ওই বুথ দুটি থেকে উদ্ধার করা ভিডিও ফুটেজ দেখে বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। তদন্তের জন্য ভিডিও ফুটেজগুলো র‌্যাবের সদস্যদের সরবরাহ করা হয়েছে।

গত বুধবার সকাল সোয়া ৬টা থেকে পৌনে ৭টার মধ্যে প্রাইম ব্যাংকের তিনটি এটিএম বুথ থেকে পাঁচ লাখ ৭৫ হাজার টাকা তুলে নেয় একটি জালিয়াতচক্র। ধারণা করা হচ্ছে, আন্তর্জাতিক কার্ড ক্লোন করে ওই জালিয়াতি করা হয়েছে। প্রাইম ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কার্ডগুলো ছিল বিদেশি নাগরিকদের।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র শুভঙ্কর সাহা বলেন, ‘ওই কার্ডগুলোর গোপন তথ্য জালিয়াতচক্রটি কিভাবে পেল সেটা আমরা জানার চেষ্টা করছি। আগে কখনো এখানকার কোনো হোটেলের বিল পরিশোধ করতে ওই কার্ডগুলো ব্যবহার করা হয়েছিল কি না তাও জানার চেষ্টা চলছে। মাস্টারকার্ডের কোনো ত্রুটি আছে কি না তাও খতিয়ে দেখা হবে।’

এদিকে এটিএম কার্ড জালিয়াতির অভিযোগে চীনা নাগরিক জো জিয়ান হুই ও তার দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে র‌্যাব। গতকাল বৃহস্পতিবার র‌্যাব ২-এর উপসহকারী পরিচালক (ডিএডি) মো. জামালউদ্দিন বাদী হয়ে নিউ মার্কেট থানায় তথ্যপ্রযুক্তি ও যোগাযোগ আইন এবং দণ্ডবিবিধির জালিয়াতির ধারায় মামলাটি দায়ের করেন। গতকালই এ মামলায় জো জিয়ান হুইকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন করেছে পুলিশ। আদালত এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

তবে জো জোয়ান হুইর দুই সহযোগী গতকাল মালয়েশিয়ান এয়ারওয়েজের একটি বিমানে ঢাকা ত্যাগ করেছে। তদন্তকারীরা বলছেন, পাঁচ লাখ ৯ হাজার টাকা তুলে নিয়ে পালিয়ে যাওয়া ওই দুজনও চীনা নাগরিক।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে মালয়েশিয়া এয়ারওয়েজের একটি বিমানে ঢাকা ত্যাগ করে ওই দুই চীনা নাগরিক। উত্তরা ৭ নম্বর সেক্টরের চীনা মালিকানাধীন একটি বাসায় পেয়িং গেস্ট হিসেবে ওঠে জিয়ানহুই ও ওই দুই চীনা নাগরিক। তারা উত্তরা ২০ নম্বর রোডের ২২ নম্বর হাউসে প্রতিদিন খাওয়াদাওয়া করতে যেত। তারা সব সময় একসঙ্গেই থাকত। তবে তাদের নাম নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি।’

মুফতি মাহমুদ খান আরো বলেন, ‘তারা বাংলাদেশে আসার আগে সৌদি আরবে ছিল। এরপর কুয়ালালামপুর হয়ে গত ১৫ এপ্রিল বাংলাদেশে আসে। আমরা তাদের অবস্থানের ব্যাপারে তথ্য পেয়ে উত্তরার সে বাসায় অভিযান চালাই। তখন বাসার মালিক জানান, বৃহস্পতিবার সকালে ওই দুই চীনা নাগরিক মালয়েশিয়া এয়ারওয়েজের একটি বিমানে ঢাকা ত্যাগ করেছে। তাদের গন্তব্য মালেশিয়ার কুয়ালালামপুর।’

মুফতি মাহমুদ খান আরো বলেন, ওই চীনা নাগরিকদের কাছ থেকে যে কার্ড উদ্ধার হয় সে কার্ড দুটি সৌদি আরবের ব্যাংক অব রিয়াদের নকল কার্ড। তারা বাংলাদেশে আসার আগে সৌদি আরব ভ্রমণ করেছিল।

গ্রেপ্তার জো জিয়ান হুই চীনা ভাষা ছাড়া কোনো ভাষা বোঝে না। ফলে দোভাষীর মাধ্যামে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানান তদন্তকারীরা।

র‌্যাব ২-এর উপ-অধিনায়ক দিদারুল আলমের ধারণা, ওই তিনজন আন্তর্জাতিক কার্ড ক্লোনিং চক্রের সদস্য। নিউ মার্কেট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহবুবুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, মামলার এজাহারে আসামির বিরুদ্ধে ৬৬ হাজার টাকা তুলে নেওয়ার অভিযোগ করা হয়েছে। তবে অজ্ঞাতপরিচয় দুই সহযোগীকে আসামি করা হয়েছে, যারা একইভাবে টাকা তুলে নিয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

র‌্যাব সূত্র জানায়, সৌদি আরবের রিয়াদ ব্যাংকের কয়েকটি অ্যাকাউন্ট থেকে প্রাইম ব্যাংকের বুথ ব্যবহার করে ক্লোনিং মাস্টারকার্ড দিয়ে টাকাগুলো তুলে নেওয়া হয়েছে। কিভাবে এসব কার্ড ক্লোন হয়ে প্রাইম ব্যাংকের বুথে ব্যবহার হলো তাও তদন্ত করছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এ ক্ষেত্রে র‌্যাবের আইটি দল তাদের সহায়তা করছে।

এলিফ্যান্ট রোডের প্রাইম ব্যাংকের এটিএম বুথের নিরাপত্তাকর্মী দুলাল উদ্দিন জানান, সকাল ৬টার কিছু পরে চীনা নাগরিক বুথে ঢুকে দীর্ঘক্ষণ অবস্থান করে। সন্দেহ হলে তিনি ভেতরে গিয়ে চ্যালেঞ্জ করেন। ওই সময় বুথ থেকে তোলা পুরো টাকাই তাঁকে দিয়ে দিতে চায় জো জিয়ান হুই। এতে সন্দেহ গাঢ় হলে তিনি কৌশলে বুথের বাইরে এসে দরজা আটকে দিয়ে ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের খবর দেন। পরে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বিষয়টি পুলিশ ও র‌্যাবকে জানায়। এ ঘটনায় ওই নিরাপত্তাকর্মীকে পুরস্কৃত করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আহমদ কামাল খান চৌধুরী।

মন্তব্য