kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

মাথায় মল ঢেলে লাঞ্ছনা

প্রধান আসামি কারাগারে

বরিশাল অফিস   

২২ মে, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বরিশালের বাকেরগঞ্জে মাদরাসা সুপারকে মারধর ও মাথায় মল ঢেলে লাঞ্ছিত মামলার প্রধান আসামি সোহেল খন্দকারকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ থানার মহিষকাটা থেকে সোহেলকে গ্রেপ্তারের পর রবিবার তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়।

তিনি বাকেরগঞ্জ উপজেলার ভরপাশা গ্রামের এমদাদ খন্দকারের ছেলে। এ নিয়ে এ ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাকেরগঞ্জ ও বাবুগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মফিজুল ইসলাম।

রবিবার দুপুরে বরিশাল নগরীর লাইন রোডের জেলা পুলিশের সদর সার্কেল অফিসে সংবাদ সম্মেলনে মফিজুল ইসলাম বলেন, সোহেলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে গভীর তদন্তের স্বার্থে আরো জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁর রিমান্ড আবেদন করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ১১ মে বাকেরগঞ্জ উপজেলার কাঁঠালিয়া ইসলামিয়া দারুচ্ছুন্নাৎ দাখিল মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা ও সুপার মাওলানা আবু হানিফকে মারধর ও মাথায় মল ঢেলে লাঞ্ছিত এবং এর ভিডিও ধারণ করা হয়। এরপর লাঞ্ছনার শিকার আবু হানিফ ও তাঁর পরিবার লোকলজ্জায় বিষয়টি গোপন রাখতে চায়। তবে ১৩ মে ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। পরে আবু হানিফ ছোট ভাই জাকারিয়া হোসেনসহ আটজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতপরিচয় আরো পাঁচ-ছয়জনকে আসামি করে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন। এই মামলায় গ্রেপ্তার অন্য তিনজন হলো কাঁঠালিয়া গ্রামের মৃত হাসেম মুসল্লির ছেলে মিনজু মুসল্লি, ফারুক মুসল্লির ছেলে ফরহাদ মুসল্লি ও বাকেরগঞ্জ পৌরসভার হারুন হাওলাদারের ছেলে বেল্লাল হোসেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা