kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ব্রাজিলে চার্জারবিহীন আইফোন বিক্রি নিষিদ্ধ ঘোষণা

অনলাইন ডেস্ক   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ২১:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্রাজিলে চার্জারবিহীন আইফোন বিক্রি নিষিদ্ধ ঘোষণা

ছবি : টেক রাডার।

চার্জারবিহীন আইফোনকে ‘অসম্পূর্ণ পণ্য’ আখ্যা দিয়ে এর বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে ব্রাজিল। সেই সঙ্গে অ্যাপলকে প্রায় ২২ কোটি ৩০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে দেশটির বিচার ও জননিরাপত্তা মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। খবর বিবিসির।

বিজ্ঞাপন

ব্রাজিলিয়ান ভোক্তা সংস্থা সেনাকন বলেছে, অ্যাপলের নতুন আইফোনের সাথে চার্জার অন্তর্ভুক্ত না করায় এটি একটি অসম্পূর্ণ পণ্য হিসেবে বিক্রি করা হচ্ছে, যা গ্রাহকদের প্রতি বৈষম্যমূলক।

অ্যাপল এই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপিল করবে বলে জানা গেছে।

রয়টার্সকে দেওয়া এক বিবৃতিতে অ্যাপল জানিয়েছে, ব্রাজিলের উদ্বেগ সমাধানে তারা দেশটির কর্তৃপক্ষের সাথে কাজ করবে। এর আগেও তারা ব্রাজিলের বেশ কয়েকটি আদালতের রায়ে জিতেছে বলে জানায় কম্পানিটি।

অ্যাপল আরো বলেছে, ‘গ্রাহকরা তাদের ডিভাইসগুলো চার্জ করার এবং সংযোগ অব্যাহত রাখার বিকল্প ব্যবস্থাগুলো নিয়ে যে সচেতন সে ব্যাপারে আমরা আত্মবিশ্বাসী। ’

এদিকে ব্রাজিলে জরিমানা এবং নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করার এক দিন পরেই অ্যাপল তাদের নতুন আইফোন ১৪, ১৪ প্রো এবং অ্যাপল ওয়াচ আলট্রা উন্মোচন করেছে।

ব্রাজিলের সাও পাওলোর ভোক্তা সুরক্ষা সংস্থা অ্যাপলকে গত বছর প্রায় ২২ কোটি টাকা জরিমানা করেছিল। তাদের অভিযোগ ছিল, আইফোন ১২ এবং তার পরের সবগুলো সংস্করণের বিক্রি গ্রাহক আইন লঙ্ঘন করে, কারণ সেগুলোর সঙ্গে চার্জার নেই।

অ্যাপল ২০২০ সালে আইফোন ১২ উন্মোচন করার পর আইফোনের বাক্সে থাকা চার্জার এবং হেডফোন সরবরাহ বন্ধ করে দেয়।

সেনাকনের দাবি, চার্জার ছাড়াই নতুন আইফোন বিক্রির মাধ্যমে অ্যাপল কার্যকরভাবে একটি নতুন আইফোন কেনার পরে গ্রাহকদের দ্বিতীয় পণ্য কিনতে বাধ্য করছে। তাই চার্জার পণ্যের অংশ হওয়া উচিত। কারণ এটি ফোন চালানোর জন্য প্রয়োজন। এ ছাড়া চার্জার দেওয়া না হলেও আইফোনের দাম কমানো হয়নি বলে দাবি করে সংস্থাটি।

সূত্র : বিবিসি।



সাতদিনের সেরা