kalerkantho

রবিবার । ২৬ জুন ২০২২ । ১২ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৫ জিলকদ ১৪৪৩

দেশের প্রথম ডিজিটাল জনশুমারি ও গৃহগণনার সহযোগী রবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ এপ্রিল, ২০২২ ২১:৪৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দেশের প্রথম ডিজিটাল জনশুমারি ও গৃহগণনার সহযোগী রবি

আসন্ন ‘জাতীয় জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২’ পরিচালনায় দেশের শীর্ষস্থানীয় ডিজিটাল সেবাপ্রদানকারী কম্পানি রবিকে বেছে নিয়েছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)। দেশের ইতিহাসে এটিই প্রথম ডিজিটাল জরিপ। চলতি বছরের ১৫ জুন থেকে ২১ জুন পর্যন্ত বিবিএস ডিজিটাল পদ্ধতিতে ষষ্ঠ জনসংখ্যা ও আবাসন শুমারি পরিচালনা করা হবে।

আজ সোমবার রাজধানীর পরিসংখ্যান ভবনের বিবিএস অডিটোরিয়ামে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিটি সই করেন জাতীয় জনসংখ্যা ও গৃহায়ন আদমশুমারি ২০২২-এর প্রকল্প পরিচালক মো. দিলদার হোসেন এবং রবি’র চিফ এন্টারপ্রাইজ বিজনেস অফিসার মো. আদিল হোসেন।

বিজ্ঞাপন

চুক্তির আওতায় বিবিএস’কে দেশের প্রথম ডিজিটাল আদমশুমারি পরিচালনার জন্য প্রায় চার লাখ সংযোগ, ডাটা, এসএমএস বান্ডেল এবং অন্যান্য ডিজিটাল সল্যুশন দেবে রবি।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন, বিবিএস’র মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, রবি’র অ্যাক্টিং সিইও অ্যান্ড সিএফও এম. রিয়াজ রশীদ, চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অফিসার সাহেদ আলমসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রায় তিন লাখ ৭০ হাজার গণনাকারী রবি’র ৪.৫জি নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে সারা দেশের উপাত্ত সংগ্রহ করে ডাটা প্রক্রিয়াকরণের জন্য একটি কেন্দ্রীয় সার্ভারে আপলোড করবে। ডাটা সংযোগসহ কম্পিউটার-অ্যাসিস্টেড পার্সোনাল ইন্টারভিউইং (সিএপিআই) সিস্টেম, ভৌগলিক তথ্য ব্যবস্থাপনা এবং ট্যাবলেট কম্পিউটার ব্যবহার করে প্রতিটি গৃহ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হবে।

বিবিএস’র জোনাল অপারেশনে সহযোগিতার পাশাপাশি প্রস্তুতিমূলক প্রশিক্ষণে ডাটা সংযোগ দেবে রবি। সুচারুভাবে জনশুমারি পরিচালনার জন্য ডাটা সংযোগ ছাড়াও এসএমএস, লোকেশন ট্র্যাকিং এবং কল সেন্টার পর্যবেক্ষণে ই-সিআরএম সহযোগিতা  দেবে অপারেটরটি।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ প্রকল্পটির একটি স্মারক ডাকটিকিট উন্মোচন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১৪ জুন এই মাইলফলক ডিজিটাল প্রকল্পটির কার্যক্রম উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ভাষণ দেবেন।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন বলেন, ‘দেশের আর্থ-সামাজিক অগ্রগতিতে অবদান রাখে এমন নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে জরিপের নিখুঁত তথ্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। এ পরিপ্রেক্ষিতে দেশের প্রথম ডিজিটাল জপির পরিচালনায় ডিজিটাল সংযোগ প্রদানের জন্য রবিকেই আমাদের উপযুক্ত সহযোগী বলে মনে হয়েছে। ’

রবি’র অ্যাক্টিং সিইও অ্যান্ড সিএফও এম. রিয়াজ রশীদ বলেন, ‘দেশের প্রথম ডিজিটাল জনশুমারি ও গৃহগণনার সহযোগী হতে পারায় রবি গর্বিত। এত বড় একটি দায়িত্ব প্রদানের ক্ষেত্রে আমাদের ওপর আস্থা রাখায় বিবিএসকে ধন্যবাদ। আমাদের উদ্ভাবনী ডিজিটাল সল্যুশনের মাধ্যমে দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এই প্রকল্পে কাজ করার অপেক্ষায় রয়েছি আমরা। ’ 



সাতদিনের সেরা