kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১২ রজব ১৪৪২

গ্রামীণফোন হ্যাকাথনে বিজয়ী ১০ উদ্যোক্তা

টেক প্রতিদিন ডেস্ক    

২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ১০:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গ্রামীণফোন হ্যাকাথনে বিজয়ী ১০ উদ্যোক্তা

ডিজিটাল বাংলাদেশের কানেক্টিভিটি পার্টনার হিসেবে, ডিজিটাইজেশন ও নিউ নরমালে গ্রাহকদের চাহিদা পূরণে দক্ষতা ও সক্ষমতা বৃদ্ধিতে গ্রামীণফোন ধারাবাহিকভাবে কাজ করছে। গত ডিসেম্বরে প্রতিষ্ঠানটি এই প্ল্যাটফর্মের অধীনে ফ্ল্যাগশিপ ইভেন্ট হিসেবে ‘কোডমাস্টার্স হ্যাকাথন’র সিরিজ আয়োজন করে। এই প্ল্যাটফর্মটি মডার্নাইজেশন ও ডিজিটাইজেশনের লক্ষ্যপূরণে গ্রামীণফোনকে দক্ষ কোডার্স ও ডেভেলপারস খুঁজে পেতে সহায়তা করেছে।

এক হাজার তিন শরও বেশি ডিজিটাল নিনজা ‘কোডমাস্টার্স’ হ্যাকাথনে রেজিস্ট্রেশন করেন। হ্যাকাথন পার্ট-১-এ অংশগ্রহণের জন্য  চার শরও বেশি প্রতিযোগীকে নির্বাচিত করা হয় এবং এর মধ্য থেকে প্রায় ৬০ জন হ্যাকাথন পার্ট-২-এ অংশগ্রহণের সুযোগ পান। এখান থেকে বিজয়ী ১০ উদ্যোক্তার জন্য গ্রামীণফোন গতকাল রাজধানীর জিপি হাউসে এক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। 

অনুষ্ঠানে ‘ডিজিটাইজেশন অ্যান্ড গ্রোথ প্রসপেক্টাস অব বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক প্যানেল ডিসকাশনের আয়োজন করা হয়। আলোচনায় বেসিসের প্রেসিডেন্ট  সৈয়দ আলমাস কবীর, প্রথম আলোর ইয়ুথ প্রগ্রামসের হেড মুনীর হাসান, এলআইসিটির পলিসি অ্যাডভাইজার সামি আহমেদ, গ্রামীণফোনের হেড অব ডিজিটাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজি সোলায়মান আলম, প্রতিষ্ঠানটির প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা সৈয়দ তানভীর হোসেন এবং এর হেড অব কমিউনিকেশনস খায়রুল বাশার অংশগ্রহণ করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বেসিসের প্রেসিডেন্ট সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, ‘গ্রামীণফোন এবং অপারেটরদের কারণে দেশজুড়ে এখন ইন্টারনেট সহজলভ্য। আর এর ফলে তরুণদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং কাজ করা অনেক সহজ হয়ে গেছে। আর আজকের আয়োজনের মতো উদ্যোগগুলো তরুণদের জন্য একটি ইতিবাচক সুযোগ, যার মাধ্যমে তারা নিজেরাই তাদের ভবিষ্যৎ তৈরি করার অনুপ্রেরণা পাবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা