kalerkantho

রবিবার । ১২ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৯ সফর ১৪৪২

ক্ষুব্ধ সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, ফেসবুকের চাকরি ছাড়লেন

অনলাইন ডেস্ক   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৫:২৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ক্ষুব্ধ সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, ফেসবুকের চাকরি ছাড়লেন

ফেসবুকের কর্ণধার মার্ক জাকারবার্গ তথা ফেসবুক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ তুলে চাকরি ছাড়লেন ২৮ বছর বয়সী সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার। ভারতীয় বংশোদ্ভ‌ুত অশোক চান্দেওয়ানে ১৩০০ শব্দের ইস্তফাপত্র জমা দিয়েছেন ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে। তারপর ওয়াশিংটন পোস্টকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি যা বলেছেন তা শুধু বিস্ফোরক নয়, এর যদি চার আনাও সত্যতা থাকে তাহলে ফেসবুকের নিরপেক্ষতা, মূল্যবোধ নিয়ে প্রশ্ন ওঠা স্বাভাবিক বলেই মনে করছেন অনেকে।

ফেসবুকের কর্মচারীদের নিজস্ব নেটওয়ার্কিং সাইট প্যাসিফিকে নিজের বক্তব্য জানিয়ে চাকরি থেকে ইস্তফা দেন চান্দওয়ানে। তিনি বলেন, ফেসবুক এখন ঘৃণার স্বর্গরাজ্য। সংস্থার এখন উদ্দেশ্যই হয়ে দাঁড়িয়েছে ঘৃণা থেকে মুনাফা করা। আমেরিকা থেকে সারা বিশ্বে কী ভাবে ঘৃণা ছড়ানো হচ্ছে তাও ওই চিঠিতে লিখেছেন অশোক। তার কথায়, এক এক জায়গায় এক এক কায়দায় ঘৃণা ছড়ানো হচ্ছে। কোথাও বর্ণবিদ্বেষ, কোথাও লিঙ্গ বিদ্বেষ আবার কোথাও জাতি বা ধর্মীয় বিদ্বেষ। ১৩০০ শব্দের ওই চিঠিতে নিজের বক্তব্যের সমর্থনে একাধিক লিংক প্রমাণ হিসেবে তুলে দিয়েছেন তিনি।

অশোকের ইস্তফা এবং অভিযোগের প্রেক্ষিতে ফেসবুকের মুখপাত্র লিজ বুর্গোইস বলেন, আমরা ঘৃণা ছড়িয়ে  ফায়দা নেই না। আমাদের সম্প্রদায়কে নিরাপদ রাখার জন্য প্রতি বছর আমরা কয়েক বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করি। আমাদের নীতি ক্রমাগত আপডেট করার জন্য আমরা বাইরেরও অনেক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে সংযোগ রেখেছি। এই গ্রীষ্মেই আমরা এমন একটি পলিসি শুরু করেছি, যার মাধ্যমে ঘৃণা সম্পর্কিত সব পোস্ট চিহ্নিত করা হচ্ছে এবং সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

কয়েক বছর আগেও মার্ক জাকারবার্গের ফেসবুককে আদর্শ নিয়োগকারী বলে মনে করা হতো। মোটা বেতনের এই চাকরি ছিল যথেষ্ট আকর্ষণীয় এবং উত্তেজনাপূর্ণ। ফেসবুকের চিফ এক্সিকিউটিভ মার্ক জাকারবার্গ বলতেন, যে ফেসবুকের উদ্দেশ্য হলো গোটা বিশ্বকে একসঙ্গে বাঁধার। কিন্তু সম্প্রতি ঘৃণা ও জাতি বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগ উঠেছে ফেসবুকের বিরুদ্ধে। ফেসবুকের নীতি বদলানোর দাবি তুলেছেন এই সংস্থার অনেক কর্মচারী। সে তালিকায় সর্বশেষ সংযোজন অশোক চান্দওয়ানের ইস্তফা।

ফেসবুকের কাছে সবচেয়ে মূল্যবান কর্মচারী সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়াররাই। তাই সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার অশোক চান্দওয়ানের ইস্তফা এবং অভিযোগে বিব্রত এই সংস্থা। ২৮ বছরের চান্দওয়ান জানিয়েছেন, ফেসবুকে কাজের পরিবেশ অত্যন্ত ভালো। কিন্তু কম্পানি কর্তৃপক্ষ সমাজের কিসে উপকার হবে, তা চিন্তা করার বদলে নিজেদের লাভ ওঠাতেই বেশি ব্যস্ত। এই বিষয়টি উপলব্ধি হওয়ার পরই তিনি ইস্তফা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন বলে জানান। বিশেষ করে মায়ানমারের গণহত্যা এবং সম্প্রতি কেনোশার হিংসাত্মক ঘটনায় কয়েকটি বিদ্রোহী গ্র‌ুপের পোস্ট ফেসবুক সরিয়ে না দেওয়ার কথা উল্লেখ করেছেন অশোক। 

সূত্র: এই সময়, দ্য ওয়াল 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা