kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৩ আষাঢ় ১৪২৭। ৭ জুলাই ২০২০। ১৫ জিলকদ  ১৪৪১

চীনা টিকটক ছুড়ে ফেলে ভারতের 'চিঙ্গারি', রাতারাতি ৩০ লাখ ডাউনলোড!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩০ জুন, ২০২০ ১৮:৩৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চীনা টিকটক ছুড়ে ফেলে ভারতের 'চিঙ্গারি', রাতারাতি ৩০ লাখ ডাউনলোড!

গালওয়ানে চীনা সেনাদের হাতে ২০ ভারতীয় সেনা জওয়ানের মৃত্যুর ঘটনায় উত্তেজনায় ফুসছে পুরো ভারত। ডাক এসেছে চীনা পণ্য বর্জনের। সে ডাকে সাড়া দিয়ে একের পর এক চীনা পণ্য বর্জন করে চলেছে ভারতীয়রা। প্রিয় চায়না অ্যাপ 'টিকটক' ছুড়ে ফেলে রাতারাতি বিকল্প খুঁজে নিল আমজনতা। টিকটকের ভারতীয় ভার্সন চিঙ্গারির পালে উজানের হাওয়া। রাতারাতি ৩০ লাখ টিকটক ব্যাবহারকারীর মোবাইলে এই অ্যাপটি ডাউনলোড করা হয়েছে।

এখানেই শেষ নয়। গুগল প্লে স্টোরে এই মুহুর্তে সবচেয়ে বেশি সার্চ হয়েছে চিঙ্গারি অ্যাপের। সোমবার টিকটক-সহ ৫৯টি চীনা অ্যাপ ভারতে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার পর থেকেই চিঙ্গারির রমরমা শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে এক লাখ নতুন ইউজার পেয়েছে চিঙ্গারি। প্রতি ঘন্টায় এর ভিউয়ার ২০ লাখ ছাড়িয়েছে। এ পর্যন্ত ৩০ লাখ মানুষ এই অ্যাপ ডাউনলোড করেছে।

বেঙ্গালুরুতে গত বছর বিশ্বাত্মা নায়েক ও সিদ্ধার্থ গৌতম নামের দুই ভারতীয় এই অ্যাপটি লঞ্চ করেন। প্রতিদ্বন্দ্বী টিকটককে ছাপিয়ে এখন চিঙ্গারি গুগল প্লে স্টোরে টপ ফর্মে। উল্লেখ্য টিকটকের মতোই কাজের এই অ্যাপটি সম্পূর্ণভাবে ভারতে তৈরি।

এই অ্যাপে হিন্দি ইংরাজি ছাড়াও মোট আটটি ভাষা রয়েছে। এটিতে ভিডিও আপলোড করার সঙ্গে সঙ্গে চ্যাট এবং বন্ধুদের সঙ্গে আলাপ করার একাধিক সুবিধা রয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য বিষয় দেখার সুযোগও দেয় এই অ্যাপ। অর্থাৎ টিকটকের থেকে অনেক বেশি সুবিধা রয়েছে এই অ্যাপে।

নায়েক জানিয়েছেন, টিকটকের থেকে অনেক বেশি তথ্য সমৃদ্ধ ও বিনোদনের সম্ভার রয়েছে এই অ্যাপে। সোমবার থেকে অ্যাপ ডাউনলোড হওয়ার সংখ্যা বেড়েছে। ডাউনলোড ট্রাফিক নজরে পড়েছে। চিঙ্গারি নতুন মাইলস্টোন ছুঁতে চলেছে বলে আশাবাদী এই সংস্থার কর্ণধাররা। কীভাবে এই অ্যাপকে আরো উন্নত করা যায়, সে বিষয়ে আলোচনা চলছে। এজন্য বিনিয়োগকারী খুঁজছে সংস্থা বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, শিল্পপতি আনন্দ মাহিন্দা নিজে কখনো টিকটক ব্যবহার করেননি, তিনি চিঙ্গারি ডাউনলোড করেছেন। এই বিষয় নিয়ে টুইটও করেন তিনি। তিনি লেখেন, মোর পাওয়ার টু ইয়ু। চিঙ্গারি অ্যাপে ভিডিও আপলোড ও ডাউনলোড করা যায়।

কনটেন্ট শেয়ার করা যায়, ফিড ব্রাউজ করা যায় ও নতুন নতুন ব্যক্তির সঙ্গে চ্যাট করার অপশন রয়েছে এতে। এই অ্যাপে নিজের হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাস, অডিও ক্লিপ, জিআইএফ স্টিকার ও ছবি আপলোড করার অপশন রয়েছে বলে জানা গেছে।

ইংরাজি, হিন্দি, বাংলা. গুজরাটি, মারাঠি, কন্নড়, পঞ্জাবি, মাললায়ম, তামিল ও তেলুগু ভাষায় এই অ্যাপ ব্যবহার করা যাবে। সবচেয়ে বড় কথা প্রতি ভিডিও আপলোড করলে চিঙ্গারি ব্যবহারকারী পয়েন্ট পাবেন। নির্দিষ্ট সংখ্যক পয়েন্টের ভিত্তিতে টাকা পাবেন তিনি। গুগল প্লে স্টোর ও অ্যাপেল অ্যাপ স্টোরে এই অ্যাপ পাওয়া যাচ্ছে।

সূত্র- কলকাতা ২৪।

লাখ ডাউনলোড

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা