kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৩ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

আমি কোথায় পাব তারে...

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৫৭ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



আমি কোথায় পাব তারে...

ফাইল ছবি।

নব্বইয়ের দশকেও প্রেম আর প্রতীক্ষা যেন সমর্থক শব্দ ছিল। বিকেলের সোনা আলোয় মহল্লার ছাদে দেখা তরুণী আর গার্লস স্কুলের গেটের সামনে দিয়ে সাইকেল চালিয়ে বাড়ি ফেরা। অধরা স্বপ্ন। বুকের ভেতর জমে থাকা কথাটা বুকের ভেতরেই মরে গেছে। আরেকটু এগিয়ে যেসব ভাগ্যবানরা পরস্পরের সাঁড়া পেয়েছেন, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তাঁদের সম্পর্ক শেষ হয়েছে অনন্ত প্রতীক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়ে। তারপর একদিন বাবা মায়ের পছন্দ করা পাত্র-পাত্রীকে বিয়ে করে তাঁরা ঘোর সংসারী হয়ে উঠেছেন।

কিন্তু ডিজিটাল যুগে ইন্টারনেট ও নানা ধরনের মোবাইল অ্যাপের ব্যবহার ভালোবাসার জগতে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটিয়ে দিয়েছে। এই সময়ে প্রিয় মানুষটির জন্য অনন্তকাল ধরে প্রতীক্ষা করার ধারণাটি সম্ভবত অ্যানালগ ফোনের মতোই বিলুপ্ত হয়ে গেছে। 

বিশ্বব্যাপী অনলাইন ডেটিং সাইট ও মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারের মাধ্যমে সৃষ্টি হয়েছে ২.৪ বিলিয়ন ডলারের বিশাল বাজার। নব্বইয়ের দশকের মানুষেরা যতটুকু কল্পনা করতে পারতো, রোমান্টিক হবার ক্ষেত্রে বর্তমান সময়ে তারচেয়েও সহস্রগুণ বেশি বিকল্প রয়েছে। প্রতীক্ষা এখন অপ্রয়োজনীয়। শুধুমাত্র মোবাইল স্ক্রিনের ডানদিকে সোয়াইপ করেই মানুষ তার নিঃসঙ্গতাকে ঘুচিয়ে ফেলতে পারে। ভ্যালেন্টাইন ডে স্পেশালে এমন একটি বাংলাদেশি উদ্যোগ ‘কফি আড্ডা’।

দেশের অন্যতম মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান এমসিসি লিমিটেডের নতুন মোবাইল অ্যাপ ‘কফি আড্ডা'। এই অ্যাপের মাধ্যমে পৃথিবীর যে কেউ তাদের নিকটবর্তী অবস্থান থেকে মনের মানুষ খুঁজে পাবেন। বেটা ভার্সন লঞ্চ করার পরপরই এই অ্যাপ নিয়ে তরুণদের মধ্যে বেশ আগ্রহ দেখা যাচ্ছে। কফি আড্ডার ৭০ শতাংশ ব্যবহারকারী অনূর্ধ্ব ২৫ বছর বয়স্ক তরুণ-তরুণী। ২৫ থেকে ৩৫ এর মধ্যে রয়েছে বাকি ২০ শতাংশ ব্যবহারকারী। সঙ্গী পেতে আগ্রহী মধ্য বয়স্করাও এই অ্যাপ ব্যবহার করছেন, তবে তাঁরা সংখ্যায় কম।

কফি আড্ডা এক ভিন্ন ধরনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। শুধুমাত্র নতুন কোনো সম্পর্কে আগ্রহী, নিঃসঙ্গ এবং সিঙ্গেল মানুষরাই এই ধরনের ডেটিং অ্যাপগুলো ব্যবহার করে থাকেন। রেজিস্ট্রেশন করার সময় ব্যবহারকারীকে প্রোফাইল ছবি ও নিজের সম্পর্কে কিছু তথ্য দিতে হয়। অ্যাপের জটিল অ্যালগরিদম স্বয়ংক্রিয়ভাবে ব্যবহারকারীর পছন্দ অনুযায়ী সম্ভাব্য বন্ধুদের প্রোফাইল দেখাতে থাকে। প্রোফাইলের উপর ডানদিকে সোয়াইপ করার অর্থ-সেই প্রোফাইলের অধিকারীকে বার্তা পাঠানো যে, আপনাকে আমার বন্ধু হিসেবে পেতে আগ্রহী। উক্ত প্রোফাইলের মালিক যদি এই আহ্বানকে গ্রহণ করেন, তবেই তাঁরা পরস্পর চ্যাট বা আলাপ শুরু করতে পারবেন। কফি আড্ডার ভাষায় এটাকে বলে ম্যাচ করা।

এই ধরনের অনলাইন ফ্রেন্ড ফাইন্ডিং অ্যাপ্লিকেশনের ধারণা বাংলাদেশে নতুন। গুগল প্লে স্টোরে গিয়ে Coffee Adda লিখে সার্চ করলেই মিলে যাবে কফি আড্ডা অ্যাপ। তাই এই অ্যাপের মাধ্যমে সঠিক বন্ধু খুঁজে পাওয়ার বা অ্যাপ্লিকেশনটিকে কার্যকরভাবে ব্যবহার করার পদ্ধতি সম্পর্কে কৌতুহল থেকেই যায়।

সঙ্গী পাওয়ার টিপস

প্রোফাইল ছবি: অনলাইন ডেটিং অ্যাপগুলোর ক্ষেত্রে প্রোফাইল ছবি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ মূলত ছবির মাধ্যমেই এখানে একজন আরেকজনের প্রতি আকৃষ্ট হন। ফলে ফেইক ছবি, অন্য বস্তু ছবি, মাথা কাটা ছবি, চুল দিয়ে মুখ ঢাকা পড়া ছবি, বডি বিল্ডার বা সেলফি প্রভৃতি টাইপের ছবি ব্যবহার করা উচিত নয়। এতে ব্যক্তিত্ব ও আকর্ষণের অনেকখানি ঢাকা পড়ে যায়। যারা অনলাইনে বন্ধু খোঁজেন তাঁরা এই ধরনের প্রোফাইলের অধিকারী মানুষের সাথে সম্পর্কে জড়ানোর বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারেন না। তাই সুন্দর, স্পষ্ট ও আকর্ষণীয় প্রাফাইল ছবি ব্যবহার করুন।

ইন্টারেস্ট: ইন্টারেস্টের জায়গাটিও খুব ভালোভাবে লক্ষ্য রাখা উচিত। কারণ দুজনের পছন্দ কাছাকাছি হলে ম্যাচিংটাও ভালো হয়। একজন মানুষ কি পছন্দ করেন, তাতেও তার ব্যক্তিত্ব ফুটে ওঠে। কিন্তু এসব ক্ষেত্রে মিথ্যা তথ্য দেওয়া উচিত নয়। কারণ আপনি যখন নিজেকে বুক লাভার বলছেন, তখন এমনও হতে পারে যে, অপরজন হয়তো বই নিয়েই আপনার সাথে আলোচনা শুরু করতে চাইছেন।

চ্যাট: ভার্চুয়াল জগতে একটি সম্পর্ক কতদূর গড়াবে বা আদতে শুরুই হবে কিনা তা নির্ভর করে চ্যাটে আপনি কি ধরনের কথাবার্তা বলছেন, তার ওপর। মনে রাখা দরকার, অপরপাশে যিনি আছেন, তিনিও একজন মানুষ এবং তিনিও বন্ধুই খুঁজছেন। তাই এমন কিছু কখনই বলা উচিত নয়, যাতে তিনি কষ্ট পান, অপমানিত বা বিরক্ত হন বা উত্তর প্রদান থেকে বিরত থাকেন। কারো মুখের কাছে সারাক্ষণ hi,' 'hey', ‘oii', ‘ai je', ‘nice' এইসব বললে তিনি বিরক্তই হন। তাই বন্ধু তৈরির শুরুতে এমন কোনো কথা বলুন যাতে অপর পক্ষের কথা বলার আগ্রহ তৈরি হয়।

ভালোবাসা দিবসের খুশি আরো বাড়িয়ে দিতে কফি আড্ডাতে বন্ধু খুঁজতে খুঁজতে মিলে যেতে পারে নানা গিফট। ঢাকার কোনো প্রিমিয়াম কফি শপে ফ্রি কফির সাথে আড্ডা অথবা বই মেলাতে সদ্য প্রকাশিত প্রেমের উপন্যাস। পুরো ফেব্রুয়ারি মাস জুড়ে ডানদিকের সোয়াইপে বন্ধুর পাশাপাশি মজার মজার নানা গিফট।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা