kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

দেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ স্মার্ট অফিস চালু করলো সিসটেক

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:০১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ স্মার্ট অফিস চালু করলো সিসটেক

দেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ স্মার্ট অফিস চালু করেছে সিসটেক ডিজিটাল লিমিটেড। রাজধানীর কারওয়ান বাজারে জনতা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে মঙ্গলবার এই স্মার্ট অফিসের উদ্বোধন করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, স্মার্ট অফিস হলো ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি) প্রযুক্তি ও সেবাকে কাজে লাগিয়ে বুদ্ধিমান ও চৌকস পরিবেশে কাজের উপযোগী একটি অফিস। অফিসের বাতি, এসি, ডেস্ক, ভ্যানিশিং স্ক্রিন, নানা ধরনের যন্ত্রপাতিসহ সবকিছুই নিয়ন্ত্রিত হয় আধুনিক ইন্টারনেট নিয়ন্ত্রিত উপায়ে।

প্রায় এক বছর ধরে সিসটেক ডিজিটাল লিমিটেড বেশ কিছু বিদেশি স্মার্ট ডিভাইস উত্পাদনকারী কম্পানিকে বাংলাদেশ থেকে সফটওয়্যার ও প্রযুক্তি সেবা দিয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ঐ কম্পানিগুলোর সাথে দেশীয় সফটওয়্যার ও প্রযুক্তির সংমিশ্রণে সিসটেক তাদের বাংলাদেশ, যুক্তরাজ্য ও জাপান অফিস থেকে সম্পূর্ণ স্মার্ট অফিস অটোমেশন সেবা চালু করতে যাচ্ছে। যার একটি ব্যবহারিক বাস্তবায়ন করা হয়েছে সিসটেক ডিজিটালের জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক অফিসে।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আমাদের দেশীয় প্রতিষ্ঠান অনেক আগেই সফটওয়্যার সেবা রপ্তানিতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অনেক সুনাম অর্জন করেছে। বিগত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশ থেকে আমরা হার্ডওয়্যার তৈরির ক্ষেত্রেও এগিয়ে যাচ্ছি। অচিরেই আমরা হার্ডওয়্যার রপ্তানিতেও সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হবো। এই ধরনের অফিস সিসটেকের কাজের পরিবেশকে উন্নত করার পাশাপাশি সার্বিকভাবে কাজের মান, দক্ষতা, মেধা ও মননশীলতা বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।’

সিসটেক ডিজিটাল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম রাশিদুল হাসান বলেন, ‘শত প্রতিকূলতার মাঝেও বাংলাদেশের মতো একটি উন্নয়নশীল দেশে এই ধরনের স্মার্ট অফিস সেবা চালু করতে পেরে আমরা আনন্দিত। প্রযুক্তির উত্কর্ষতাকে কাজে লাগিয়ে এই খাতে আমাদের গবেষণা ও উদ্ভাবন ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।’

মন্তব্য