kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

বসুন্ধরা সিটিতে ‘ঘষলে কার্ড বাজিমাত’ অফার

১৫০০ টাকার কেনাকাটায় স্ক্র্যাচ কার্ডে মিলবে পুরস্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



১৫০০ টাকার কেনাকাটায় স্ক্র্যাচ কার্ডে মিলবে পুরস্কার

ঈদ উপলক্ষে গতকাল বাজিমাত অফারের উদ্বোধন করেন বসুন্ধরা সিটির নির্বাহী পরিচালক শেখ আব্দুল আলীমসহ অন্য অতিথিরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে এক হাজার ৫০০ টাকার কেনাকাটায় থাকছে বাজিমাত অফার। কেনাকাটার বিপরীতে স্ক্র্যাচ কার্ড ঘষলেই ক্রেতা পাবেন পুরস্কার। ক্রেতাদের শপিংয়ে আগ্রহী করতে গতকাল বুধবার বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে এক জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে ‘ঘষলে কার্ড বাজিমাত’ অফারের উদ্বোধন করা হয়। ঈদুল ফিতরের চাঁদ রাত পর্যন্ত এই অফার চলবে। ক্রেতারা বসুন্ধরা সিটির ১, ২ ও ৬ নম্বর লেভেল থেকে তাত্ক্ষণিক পুরস্কার নিতে পারবেন।

স্ক্র্যাচ কার্ডে প্রাইভেট কার থেকে শুরু করে নিত্যব্যবহার্য ৪৪ ধরনের পুরস্কার পাবেন ক্রেতারা। শপিং মল কর্তৃপক্ষ বলছে, ক্রেতাদের সম্মানিত করতে প্রতিবছর এ আয়োজন করা হয়। এবারের ২৪তম আয়োজনে সর্বোচ্চসংখ্যক ১৫ লাখের বেশি পুরস্কার রয়েছে।

ঈদ উপলক্ষে বাজিমাত অফারের উদ্বোধন করেন বসুন্ধরা সিটির নির্বাহী পরিচালক শেখ আব্দুল আলীম। আরো উপস্থিত ছিলেন বসুন্ধরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজ ও বসুন্ধরা সিটির চিফ মার্কেটিং অফিসার এম এম জসীম উদ্দিন, বসুন্ধরা সিটির নির্বাহী পরিচালক (মানবসম্পদ ও নিরাপত্তা) মেজর (অব.) শাহাব উদ্দিন চাকলাদার, নির্বাহী পরিচালক মাহবুব মোর্শেদ খান, বসুন্ধরা সিটি শপিং মল দোকান মালিক সমিতির সভাপতি এম এ হান্নান আজাদ প্রমুখ।

আয়োজকরা বলছেন, এই অফারে ৪৪ ধরনের লাখ লাখ টাকার পুরস্কার থাকবে। যার মধ্যে প্রাইভেট কার, ডায়মন্ড সেট, ইয়ামাহা মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, এলইডি টিভি, ডায়মন্ড রিং, স্মার্টফোন, ব্লেন্ডার মেশিন, রাইস কুকার, ইলেকট্রিক আয়রন, ইলেকট্রনিক কেটলি, টগিওয়ার্ল্ড গিফট কুপন, গেমসহ ফান ফ্যাক্টরিতে প্রবেশ কুপন, বসুন্ধরা টিস্যু ভ্যালু প্যাক, ফুড ভ্যালু প্যাক ও নুডলস, ১০০ টাকার প্রাইজ বন্ডসহ একাধিক গিফট।

এম এম জসীম উদ্দিন বলেন, ‘কেনাকাটার বিপরীতে এবার সর্বোচ্চসংখ্যক ১৫ লক্ষাধিক পুরস্কার থাকবে। ক্রেতাদের সম্মানিত করতেই বরাবরে মতো এ আয়োজন। স্ক্র্যাচ কার্ডে কেউ খালি হাতে ফিরবে না, ছোট-বড় যাই-ই হোক একটা পুরস্কার থাকবে। ছোট পুরস্কারগুলো ক্রেতা তাত্ক্ষণিক নিতে পারবে; কিন্তু বড় পুরস্কার ঈদের পর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ভাগ্যবানদের হাতে তুলে দেওয়া হবে।’

শেখ আব্দুল আলীম বলেন, ‘ক্রেতাদের আকৃষ্ট ও সম্মানিত করতে এবারের ২৪তম আয়োজন। প্রতিবছরই সফলতার সঙ্গে এই কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। প্রতিবারের মতো এবারও ক্রেতাদের সহযোগিতা ও তাদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণের মাধ্যমে সফলভাবে আয়োজন সম্পন্ন করা হবে।’

দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হান্নান আজাদ বলেন, ‘কোনো চাঁদা ও সন্ত্রাসবিহীন শপিং মল বসুন্ধরা ছাড়া আর একটিও নেই। অন্য যেকোনো শপিং মলের চেয়ে এখানে কম মূল্যে পণ্য কিনতে পারেন ক্রেতারা।’

মন্তব্য