kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২০ জুন ২০১৯। ৬ আষাঢ় ১৪২৬। ১৬ শাওয়াল ১৪৪০

চলন্ত বাসে ধর্ষণচেষ্টা জনতা বাঁচাল তরুণীকে

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১২ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চলন্ত বাসে ধর্ষণচেষ্টা জনতা বাঁচাল তরুণীকে

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় ‘স্বদেশ সার্ভিস’ নামের একটি চলন্ত বাসে এক তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টাকালে গাড়ির চালককে আটক করা হয়েছে। সোমবার রাত সোয়া ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। লোকজন সোনারগাঁ থানা-পুলিশকে খবর দিলে চালককে আটক করা হয় এবং বাসটি জব্দ করে থানা হেফাজতে নিয়ে যাওয়া হয়। ওই তরুণী বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় চালক ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, কিশোরগঞ্জের ২২ বছর বয়সী ওই তরুণী দেড় বছর যাবৎ মুন্সীগঞ্জের  গজারিয়ায় একটি কারখানায় সুইং অপারেটর হিসেবে চাকরিরত। তিনি ঈদুল ফিতরের ছুটি কাটিয়ে বাড়িথেকে কর্মস্থলের উদ্দেশে রওনা দিয়ে সোমবার রাত ৯টার সময় ঢাকার গুলিস্তানে স্বদেশ কাউন্টার থেকে সোনারগাঁর মোগরাপাড়া চৌরাস্তার টিকিট কেটে বাসের পেছনের সিটে বসেন। বাসটি রাত ১০টার দিকে মোগরাপাড়া পৌঁছলে সব যাত্রী নেমে যেতে থাকে। পেছন থেকে তিনি নামার জন্য বাসের সামনে আসতে আসতে সব যাত্রী নেমে গেলে চালক শামীম মিয়া তাঁকে নামতে না দিয়ে মেঘনাঘাটে নামানোর কথা বলে গাড়ি চালাতে শুরু করে। ওই সময় চালকের সহকারী নিরব বাসের দরজা লাগিয়ে চালকের আসনে বসে এবং চালক ওই নারীর মুখ চেপে পেছনের সিটে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এর মধ্যে বাসটি মেঘনা নিউ টাউন মার্কেটের সামনে চলে এলে লোকজন দেখে মেয়েটি ‘বাঁচাও, বাঁচাও’ বলে চিৎকার করেন। লোকজন তখন ছুটে গিয়ে বাসটিতে উঠে তাঁকে উদ্ধার করে এবং চালককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। সহকারী নিরব পালিয়ে যায়। 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা